সংগঠনবিরোধী কাজ থেকে বিরত থাকার আহ্বান বেলজিয়াম আ.লীগের

ফারুক আহাম্মেদ মোল্লা
ফারুক আহাম্মেদ মোল্লা ফারুক আহাম্মেদ মোল্লা
প্রকাশিত: ০২:৫৮ পিএম, ১০ অক্টোবর ২০১৯

বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের বেশকিছু কর্মী সংগঠনবিরোধী কাজে জড়িত হওয়ায় উদ্বেগ জানিয়েছে দেশটির আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। ইউরোপীয় আওয়ামী লীগের নিষেধ সত্ত্বেও ৫ অক্টোবর জামাত বিএনপির কিছু ব্যক্তি নিয়ে তথাকথিত সম্মেলনের নামে প্রহসন করেছে তারা।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা বলেন, কিছু ব্যক্তি ঢাকার ভূঁইয়া বাড়ি নামে একটি বাড়িতে বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের অফিস খুলেছে যা অত্যন্ত লজ্জাজনক। সাংগঠনিক নিয়মানুযায়ী অফিস থাকবে বেলজিয়ামে। নিজস্ব স্বার্থ এবং ব্যবসায়িক স্বার্থে ঢাকায় বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের অফিস করা হয়েছে, তাতে আমরা খুবই লজ্জিত।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি শহিদুল হক, সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর চৌধুরী রতন।

এ সময় বক্তব্য দেন- বেলজিয়াম আওয়ামী লীগ সভাপতি শহীদুল হক, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর চৌধুরী রতন, সিনিয়র সহ-সভাপতি বিধান দেব, সহ-সভাপতি, মোশাররফ হোসেন বাবু, উপদেষ্টা ড. ফারুক মির্জা, যুগ্ম সম্পাদক দাউদ খান সোহেল, প্রচার সম্পাদক আখতারুজ্জামান, বেলজিয়াম যুবলীগ সভাপতি খালেদ মিনহাজ।

বক্তারা আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় ইউরোপীয় আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি বাবু অনিল দাশগুপ্ত, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এম এ গনি এবং বর্তমান সভাপতি এম নজরুল ইসলাম এবং সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমানের অনুমোদনে সংগঠনের কাজ অব্যাহত রয়েছে।

ইউরোপীয় আওয়ামী লীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম এবং সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমানের নিষেধ সত্ত্বেও সম্মেলনের নামে এসব প্রতারণা এবং মিথ্যাচার সংগঠনের জন্য বিপদজনক। এ ধরনের কাজ কিছু লোক করছে তারা কখনো বঙ্গবন্ধুর আদর্শের কর্মী হতে পারে না। বেলজিয়াম আওয়ামী লীগ যখন রোহিঙ্গাদের তাদের দেশে ফেরত নিয়ে ইউরোপীয় পার্লামেন্টে জনমত সৃষ্টি করার জন্য ১৫ অক্টোবর সম্মেলনের আয়োজন করেছে, ঠিক তখনই এসব জামাত বিএনপিরা অপপ্রচার করে সংগঠনের স্বাভাবিক কাজ ব্যাহত করছে।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন- যুগ্ম সম্পাদক, আবুল কালাম আজাদ মিঠু, সদস্য রানা মর্তুজা, এনট্রপ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক, সেলিম খান, সাধারণ সম্পাদক আরিফ উদ্দিন, যুগ্ম সম্পাদক মুস্তাফিজ প্রমুখ।

এমআরএম/জেআইএম

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]