রোমে দুই প্রতিষ্ঠানের রেমিট্যান্স অ্যাওয়ার্ড লাভ

জমির হোসেন
জমির হোসেন জমির হোসেন , ইতালি প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৩:১১ পিএম, ১১ অক্টোবর ২০১৯

বৈধপথে প্রবাসী আয় (রেমিট্যান্স) পাঠানোয় ৩৬ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কৃত করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। পাঁচ ক্যাটাগরিতে দেওয়া হয় এ পুরস্কার। এর মধ্যে রয়েছে সাধারণ পেশাজীবী, বিশেষজ্ঞ পেশাজীবী, ব্যবসায়ী, রেমিট্যান্স আহরণকারী ব্যাংক ও রেমিট্যান্স প্রেরণকারী প্রবাসীদের মালিকানাধীন এক্সচেঞ্জ হাউস।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এবারের আয়োজনটি ষষ্ঠবারের মতো। ইতালির রোমের ফরাজী পরিবারের মালিকানাধীন দুটি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান ন্যাশনাল মানি এক্সচেঞ্জ এবং নেক মানি লিমিটেড ধারাবাহিকভাবে এ বছরও সেরা রেমিট্যান্স অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছে।

রাজধানীর একটি মিলনায়তনে প্রধান অতিথি হিসেবে পুরস্কার তুলে দেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বাংলাদেশ ব্যাংকের এই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন গভর্নর ফজলে কবির, অর্থ মন্ত্রণালয় আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব আসাদুল ইসলাম, প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. সেলিম রেজা।

ন্যাশনাল এবং নেক মানি পক্ষে পুরস্কার গ্রহণ করে ন্যাশনাল এক্সচেঞ্জ কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হাজি মো. ইদ্রিস ফরাজী, নেক মানির সিইও ও চেয়ারম্যান হাজী ইকরাম ফরাজী ছাড়াও প্রতিষ্ঠান দুটির পরিচালক ডা. আনোয়ার ফরাজী, মনির এইচ ফরাজীসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, ‘অবৈধ চ্যানেলকে রুখে দিতে এবং বৈধ চ্যানেলে রেমিট্যান্স উৎসাহিত করতে ভবিষ্যতে প্রয়োজনে আরও সুবিধা দেওয়ার পদক্ষেপ নেওয়া হবে। আমি চাই ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে সম্পূর্ণ অর্থ যেন বাংলাদেশে আসে। এজন্য যা কিছু করা প্রয়োজন তা করা হবে।’

চলতি বছরে দুই হাজার কোটি ডলার প্রবাসী আয় আসবে বলে আশা করেন অর্থমন্ত্রী। ন্যাশনাল এক্সচেঞ্জ কোম্পানির বর্তমান চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর ফরাজী বলেন, এই অর্জনের অংশীদার ইতালি প্রবাসী বাংলাদেশিরা। তাদের সহযোগিতায় আমরা বৈধপথে রেমিট্যান্স পাঠিয়ে প্রতি বছর অ্যাওয়ার্ড পাই।

এমআরএম/পিআর

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - jagofeature@gmail.com