বঙ্গবন্ধু তোমাকে ফিরতেই হবে

প্রবাস ডেস্ক প্রবাস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৪৩ এএম, ২২ নভেম্বর ২০১৯

ঘাত প্রতিঘাত আজ সমাজে প্রতিনিয়ত প্রবাহমান।
অনাচার অনিয়মে ভরপুর প্রশাসন আপাদমস্তক মূর্চ্ছমান।
অন্যায় অবিচার দৃপ্তচিত্তে রন্ধ্রে রন্ধ্রে মূর্তিমান।

মনুষত্ব মানবিকতা এক প্রাণহীন অসার বৃক্ষে দণ্ডায়মান।
নিরীহ জনতার কষ্ট-যন্ত্রণার আর্তনাদে শীতলমান।
ভালোবাসা রিক্তহস্তে ভিখারির শূন্য থলির স্বপ্নমান।

নিষ্ঠুরতা পাষণ্ডটা নিত্যদিনের পৈশাচিকতায় চলমান।
ক্ষমতার দাম্ভিকতায় উন্মাদ ক্ষমতাধরের অনেকেই দৃশ্যমান।
প্রভাব প্রতিপত্তি বিস্তারে অগ্নিরূপে আবির্ভূত শাসকগোষ্ঠীর অনেকেই দণ্ডায়মান।

ধর্মান্ধতা জঙ্গীপনায় কূটকৌশলে ব্যস্ত ক্ষমতা বহির্ভূত সদলবলে একাট্টা হয়ে চলমান।
রাজনৈতিক নেতৃত্বের নৈতিক চরিত্রের স্খলন স্পষ্টভাবেই দৃশ্যমান।
এ এক বিভীষিকাময় কঠিন সময় কাটাচ্ছে এ সমাজ।

যেন নিস্তার নেই মনুষ্য সৃষ্ট এই অস্থিরতা থেকে আজ।
আসলেই কঠিন অস্থির সময় আষ্টেপিষ্ঠে ধরেছে অক্টোপাসের বহুহস্তে এ সমাজ।
পরিত্রাণ পরিসমাপ্ত ঘটাবার নেতৃত্ব নেই যে আজ দৃশ্যমান।

সমাজ পরিবর্তনের অঙ্গীকার আজ অদৃশ্যমান।
বঙ্গবন্ধুর বজ্রবাণী দৃপ্ত অঙ্গীকার আজ যে বড্ড বেশি দরকার।
প্রত্যাশায় বঙ্গবন্ধু ফিরে আসো আরও একবার।

৭ মার্চের সেই মহাকাব্য খানি নিয়ে বারবার।
জাগ্রত করে তোলো বাঙালির হারিয়ে যাওয়া মনুষ্যত্ব।
হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি তোমার যে ফিরে আসা আজ বেশি প্রয়োজন।

ফিরে এসো আমার মাঝে না হয় কোনো নবজাতকের আঁতুর ঘরে।
তোমাকে ফিরতেই হবে বঙ্গবন্ধু যে কোনো উপায়ে, যে কোনো মূল্যে।
তোমাকে যে ফিরতেই হবে।

পলাশ কামালী, হেলসিংকি, ফিনল্যান্ড থেকে/এমআরএম/পিআর

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - jagofeature@gmail.com