ভাগ্য ভালো ওইদিন কাজে যাইনি

আহমাদুল কবির
আহমাদুল কবির আহমাদুল কবির , মালয়েশিয়া প্রতিনিধি মালয়েশিয়া
প্রকাশিত: ০৭:১২ পিএম, ১২ জানুয়ারি ২০২০

মালয়েশিয়ার সর্বত্রই চলছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযান। দেশটির সরকারের বেঁধে দেয়া সাধারণ ক্ষমার মেয়াদ গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর শেষ হওয়ার পরপরই রাজধানী শহরসহ প্রতিটি প্রদেশে অবৈধ অভিবাসীদের আটকে অভিযান শুরু করেছে প্রশাসন। চলতি মাস থেকে অভিযানে এ পর্যন্ত তিন শতাধিক অবৈধ বাংলাদেশিকে আটক করা হয়েছে বলে একাধিক সূত্রে জানা গেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বাংলাদেশি বলেন, ‘আমার বৈধ কাগজপত্র থাকা সত্ত্বেও কাজে যেতে ভয় পাচ্ছি। আমি যে প্রজেক্টে কাজ করি সে প্রজেক্টে গত শুক্রবার ইমিগ্রেশন পুলিশ অভিযান চালিয়ে বৈধ-অবৈধ প্রায় ৪০ জনকে আটক করে। ভাগ্য ভালো ওইদিন আমি কাজে যাইনি।’ এমনটিই বলছিলেন বৈধ কাগজপত্র থাকা এক বাংলাদেশি শ্রমিক।

Maleshia2.jpg

এদিকে মালয়েশিয়ায় বর্তমানে ৭ লাখ ৫০ হাজার কর্মসংস্থান খালি। কাজের লোক খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এমনটিই স্থানীয় সাংবাদিকদের বলেন মানবসম্পদমন্ত্রী এম কুলা সেগারান। তিনি বলেন, ২০২০ সালের মধ্যে প্রায় ১০ লাখ কর্মসংস্থান তৈরির লক্ষ্যে কাজ করছে সরকার।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, অবৈধ বিদেশিদের কারণে স্থানীয়দের মধ্যে উদ্বেগ সৃষ্টি করেছে, যা শুধু জাতীয় ও সীমান্ত নিরাপত্তাকেই বিঘ্নিত করে না বরং দেশের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির ওপর প্রভাব ফেলছে। দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তানশ্রী মহিউদ্দিন ইয়াসিনের ঘোষণা অনুযায়ী, আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে অবৈধ শ্রমিক বা অভিবাসীদের বিতাড়নে কাজ করছে সংশ্লিষ্ট বিভাগ। এ ভঙ্গুর পরিস্থিতিতে বিপাকে পড়েছেন দেশটিতে কর্মরত বৈধ-অবৈধ বিদেশি কর্মীরা।

সম্প্রতি মানবসম্পদমন্ত্রী ইঙ্গিত দিয়েছেন, বাংলাদেশ থেকে বিনা খরচে কর্মী নিয়োগ করবেন। এ খবরে দেশটির সর্বত্র চলছে আলোচনা সমালোচনা। দেশে বিশেষত কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষা এবং প্রশিক্ষণের (টিভিইটি) ক্ষেত্রে চাকরির সুযোগগুলো খুব ভালো। মানবসম্পদ মন্ত্রণালয় (এমওএইচ) অবিচ্ছিন্নভাবে মালয়েশিয়ানরা শিল্প বিপ্লব ৪.০ (আইআর ৪.০) এর সাথে সামঞ্জস্য রেখে ভবিষ্যতে যে দক্ষতা অর্জন করেছে এবং দক্ষতা অর্জন করতে পারে তা নিশ্চিত করার জন্য চিন্তা-ভাবনা করা হচ্ছে।

Maleshia2.jpg

মানবসম্পদমন্ত্রীর উদ্ধৃতি দিয়ে মালয়েশিয়ার হারিয়ান মেট্রোতে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, মালয়েশিয়ায় বর্তমানে ২ লাখ ৫০ হাজার কলেজ ও ইউনিভার্সিটিপড়ুয়া শিক্ষিত বেকার রয়েছে। তারা মূলত উচ্চমানের চাকরি খুঁজছে। কোম্পানিগুলো নিয়োগ দেয়ার ব্যাপারে সতর্ক। কোম্পানি চায় দক্ষতা।

মানবসম্পদমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে মালয়েশিয়ায় ২০ লাখের বেশি বৈধ বিদেশি কর্মী রয়েছেন। সবাই কাজ করছে। কেউ বেকার নেই। তার পরও ৭ লাখ ৫০ হাজার কর্ম খালি। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি কর্ম খালি কৃষি খাতে। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে কনস্ট্রাকশন। এতে প্রায় দুই লাখের অধিক শ্রমিক সংকট রয়েছে। এ ছাড়া সার্ভিস সেক্টর, ক্লিনার, থ্রিডি এবং ময়লা-আবর্জনাযুক্ত যে কাজ রয়েছে মূলত এ কাজ বিদেশি কর্মীরা করেন। এসব কাজ মালয়েশিয়ানরা করতে চায় না।

এমআরএম/এমএস

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]