পর্তুগালে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকে বিদায়ী সংবর্ধনা

মো. রাসেল আহম্মেদ
মো. রাসেল আহম্মেদ মো. রাসেল আহম্মেদ
প্রকাশিত: ০৮:৩৮ এএম, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

পর্তুগালের বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত রুহুল আলম সিদ্দিকীকে বিদায় সংবর্ধনা দিয়েছে পর্তুগাল প্রবাসী সাংবাদিকদের সংগঠন পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাব। স্থানীয় সময় শুক্রবার বিকেল ৩টায় দূতাবাসের হল রুমে তাকে সংবর্ধনা দেয়া হয়।

পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাবের আহ্বায়ক রনি মোহাম্মদের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দূতাবাসের দ্বিতীয় সচিব দূতালায় প্রধান আব্দুল্লাহ আল রাজী এবং রাষ্ট্রদূতের সহধর্মিণী রিমা আরা খানম।

অনুষ্ঠানের শুরুতে সংগঠনের পক্ষ থেকে রাষ্ট্রদূত রুহুল আলম সিদ্দিকীকে ফুল এবং বিদায়ী মানপত্র প্রদান করা হয়। বিদায়ী সংবর্ধনায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সংগঠনের যুগ্ম-আহ্বায়ক মো. রাসেল আহম্মেদ। এছাড়া অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন দূতাবাসের দ্বিতীয় সচিব আবদুল্লাহ আল রাজি, নাঈম হাসান পাবেল, ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী, জহুরুল মুন, জাকির হোসেন, আনোয়ার এস খান ফাহিম প্রমুখ।

দূতালয় প্রধান আবদুল্লাহ আল রাজী তার বক্তব্যে প্রবাসীদের প্রতি রাষ্ট্রদূতের ভালোবাসা এবং দায়িত্বশীলতার বিভিন্ন উদাহরণ উপস্থাপন করেন এবং রাষ্ট্রদূতের উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করেন।

Portugal-(2).jpg

বিদায়ী বক্তব্য রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘পর্তুগালের অবস্থানরত সকল প্রবাসীকে সহযোগিতা করা এবং পর্তুগাল সরকারের পক্ষ থেকে প্রবাসীদের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা আদায়ের মাধ্যমে প্রবাসী বাংলাদেশিদেরকে পর্তুগালে সুন্দরভাবে বসবাস করার পরিবেশ তৈরি করে দেয়া, তাদের ন্যায্য দাবিগুলো এই দেশের সরকারের কাছে তুলে ধরা, সমস্যাগুলোর সমাধান, দুই দেশের সঙ্গে বন্ধুত্বের সম্পর্ক জোরদার করার লক্ষ্যে যে কাজগুলো করেছি আশা রাখি, সামনের দিনগুলোতে আমি না থাকলেও প্রবাসীরা এর ফলাফল ভোগ করবে। কেননা এই কার্যক্রমগুলো বাস্তবায়ন হতে একটু সময়ের প্রয়োজন হয়।’

রাষ্ট্রদূত পর্তুগালে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করার ক্ষেত্রে যে সকল পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন তা উপস্থিত সকলের সামনে তুলে ধরেন। একই সঙ্গে, পর্তুগাল প্রবাসীদের প্রাণের দাবি বাংলাদেশে পর্তুগালের ভিসা সার্ভিস বা কনস্যুলার সেবা চালু করার অগ্রগতি বিষয়েও রাষ্ট্রদূত তার অবস্থান ব্যাখ্যা করেন।

অনুষ্ঠানে পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাবের অন্যদের মধ্যে নন্দন টিভির ইউরোপ ব্যুরো প্রধান এফ আই রনি, পর্তুগাল বাংলা নিউজের এনামুল হক, বায়ান্ন টিভির পর্তুগাল প্রতিনিধি মনির হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এসআর/এমএস

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]