নিউইয়র্কে শেখ হাসিনার জন্মদিন উদযাপন

কৌশলী ইমা কৌশলী ইমা , যুক্তরাষ্ট্র
প্রকাশিত: ০১:৪৩ পিএম, ০১ অক্টোবর ২০২০

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন উদযাপন করেছে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্য আওয়ামী লীগ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, তার পরিবার পরিজনসহ ও সকল শহীদের উদ্দেশে ১ মিনিট নীরবতা পালন এবং শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও নিরাপদ জীবন কামনা করে দোয়া করা হয়।

দুর্গম পথের নির্ভীক সৈনিক আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিনের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে বক্তারা বলেন, রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা, অর্থনৈতিক উন্নয়ন, ডিজিটালাইজেশন, মানবিকতা, শিল্পায়ন, জীবনমানের উন্নয়ন, কৃষি আধুনিকায়নে সাফল্যের শিখরে উঠেছে দেশ।

রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ধরে রেখে সামাজিক সমৃদ্ধি, প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলা করে পরিবেশ উন্নয়ন, তথ্যপ্রযুক্তির সর্বোচ্চ ব্যবহার, বন্ধুত্বপূর্ণ পররাষ্ট্রনীতি সবক্ষেত্রে সাফল্য এসেছে গত কয়েক বছরে। শেখ হাসিনার জাদুকরি নেতৃত্ব এবং একের পর এক সাহসী পদক্ষেপ কার্যত দেশকে এই অগ্রগতি ও সমৃদ্ধির পথে নিয়ে গেছে।

করোনা মোকাবিলায় শক্তিধর দেশগুলো নাকানিচুবানি খেলেও শক্ত হাতে শেখ হাসিনা অদৃশ্য ভাইরাস সামাল দিচ্ছেন। অন্য যে কোনো দেশের তুলনায় বাংলাদেশে এখনও আক্রান্ত ও মৃতের হার অনেক কম। করোনায় বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দার মধ্যেও রেমিট্যান্স ও বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভে রেকর্ড গড়েছে বাংলাদেশ।

পররাষ্ট্র নীতিতে নিজ দেশের মর্যাদা সমুন্নত রেখে প্রতিবেশী ও ক্ষমতাধর রাষ্ট্র সবার সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রেখেই বাংলাদেশ উন্নয়নে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। দেশে তো বটেই, দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে এখন শেখ হাসিনার অবস্থান এখন সবার শীর্ষে। তার সহসী নেতৃত্বে দেশকে অন্যন্য উচ্চতায় পৌঁছে দিয়েছে।

নারীর ক্ষমতায়নসহ অনেক বিষয়ে বিশ্বের বহু দেশের কাছে বাংলাদেশ এখন উদাহরণ। প্রাকৃতিক বিপর্যয়, ঝড়-বন্যা-খরা সামাল দেয়ার ক্ষেত্রেও তাই। দেশের উন্নয়ন, বেসরকারি খাততে সহায়তা, অভ্যন্তরীণ রাজনীতি নিয়ন্ত্রণ এবং বিরোধপূর্ণ বিশ্ব রাজনৈতিক পরিমন্ডলে বিদেশনীতিতে সবার সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখতে তিনি সফলতা অর্জন করেছেন।

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য শরীফ কামরুল আলম হিরা। সঞ্চালনা করেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য আশাফ মাসুক।

অনুষ্ঠানে বেলুন উড়িয়ে ৭৪তম জন্মদিনের অনুষ্ঠানটি উদ্বোধন করেন বাকসুর সাবেক জিএস ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগে সাবেক উপদেষ্টা মুক্তিযোদ্ধা ড. প্রদীপ রঞ্জন কর।

শেখ হাসিনার জন্মদিনের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাতে অনেকেই উপস্থিত ছিলেন- তারা হলেন মুক্তিযোদ্ধা ফারুক হোসাইন, সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন, মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন তালুকদার, মুক্তিযোদ্ধা কামরুল হাসান চেীধুরী, রমেশ নাথ, মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান চৌধূরী, ইঞ্জিনিয়ার মোহম্মদ আলী সিদ্দিকী।

এছাড়া অ্যাডভোকেট শাহ মোহম্মদ বকতিয়ার, এমএ করিম জাহাঙ্গীর, মেসবাহ অহমেদ, ফরিদ আলম, ইলিয়ার রহমান, অধ্যাপক শাহনাজ মমতাজ, রুমানা আকতার, মঞ্জুর চৌধূরী, মুক্তিযোদ্ধা মুন্সি বসির ঊদ্দিন, আশরাফ উদ্দিন, সুবল দেবনাথ, জাকির হোসেন হিরু ভূইয়া, মোহম্মদ আকতার হোসেন, জালালউদ্দিন জলিল, কায়কোবাদ খান, হেলাল মাহমুদ, ইঞ্জিঃ মিজানুল হাসান, ছাদেকুল বদরুজামান পান্না, সিরাজুল ইসলাম সরকার, মোল্লা মাসুদ, ইঞ্জি: হাসান, খন্দকার জাহেদুল ইসলাম।

উপস্থিত ছিলেন- মাহাবুবুল খসরু, শেখ জামাল হোসেন, সেবুল মিয়া, মোহম্মদ মাঈনদ্দিন, মো. আলমগীর, টি মোল্লা, উলফাৎ মোল্লা, দেলোয়ার হোসেন মোল্লা, নাদের আলী মাস্টার, মো. জামাল বক্স, মো. মিজনুর রহমান চৌধুরী, রহিমুজ্জামান সুমন, খন্দকার জাহিদুল ইসলাম, রিণ্টু লাল দাস, ওসমান গনি, বিশ্বজিৎ সাহা, সুহাস বডুয়া, নাসিম পারভান পারু, ফিরোজ আহমেদ, ফরিদা আরভি, আতাউর রহমান তালুকদার, হেলেমউদ্দিন, ইফজাল চৌধূরী, মো. আলীমউদ্দিন, শহিদুল ইসলাম, শারমিন তালুকদার ও রাহিমুল হুদা ও জলি কর প্রমুখ।

এমআরএম/পিআর

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]