বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন তার্কির ভার্চুয়াল ঈদ পুনর্মিলনী

মু. তারিকুল ইসলাম
মু. তারিকুল ইসলাম মু. তারিকুল ইসলাম , তুর্কি
প্রকাশিত: ০৬:২২ পিএম, ১৬ মে ২০২১

ঈদ মানে আনন্দ, ঈদ মানে উৎসব। চলমান বৈশ্বিক করোনা পরিস্থিতি প্রবাসীদের ঈদ উৎসবে বাধা পড়লেও ভার্চুয়াল রামাজান ঈদের পুনর্মিলনী উদযাপন করেছে তুরস্কে বসবাসরত বাংলাদেশিরা।

তুরস্কে বাংলাদেশিদের সংগঠন ‘বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন তার্কির’ আয়োজনে এ ভার্চুয়াল ঈদ পুনর্মিলনী ও সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা আয়োজিত হয়।

স্থানীয় সময় শুক্রবার রাত ৯টায় ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- তুরস্কে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মসয়ূদ মান্নান।

jagonews24

প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাষ্ট্রদূত বলেন, মাসের পর মাস, বছরের পর বছর আমরা পরিবার-পরিজন থেকে দূরে থাকলেও এ ধরনের অনুষ্ঠান আমাদেরকে কিছুটা আনন্দ ভাগ করে নিতে সহায়তা করে। পরিবারের সঙ্গে ঈদ না করতে পারলেও আমাদের মধ্যে অন্যরকম উৎসব বিরাজ করে।

jagonews24

তিনি বলেন, এ অনুষ্ঠানে সবথেকে ভালো লেগেছে শিশু-কিশোরদের পারফরমেন্স। যারা বাংলাদেশে এখনো যায়নি অথচ চমৎকার পরিবেশনা করলো তাদেরকে অভিনন্দন জানাই। আশাকরি বিদেশের মাটিতে তারা বাংলাদেশেকে উপস্থাপন করবে।

jagonews24

তিনি অনুষ্ঠান আয়োজকদের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, করোনার কারণে আমরা সরাসরি একত্রিত হতে না পারলেও এ অনুষ্ঠান আমাদেরকে একত্রিত করেছে। ভবিষ্যতে এ ধরনের আরো একাধিক অনুষ্ঠান হবে বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

ইস্তাম্বুলের ইল্ডিজ টেকনিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক ড. শাহেন শাহর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রবাসে ঈদের অনুভূতি ব্যক্ত করেন ড. মঈনুল আহসান ও শাকিল রেজা ইফতি।

jagonews24

এছাড়া প্রোগ্রামে প্রকোশলী শেখ মইন উদ্দনি, ড. আব্দুল্লাহিল মামুন, ড. মোস্তফা ফয়সাল পারভেজ, ড. হাফিজুর রহমান, ড. রহমত উল্লাহ, ড. মাহমুদুল হাসান, কনর্সান ওয়ার্ল্ড ওয়াইড কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম, মোহাম্মাদ মহিউদ্দিন, গবেষক টারকিস পাভেল, ফারজানা আকতার, মামুন বিল্লাহ, মাহফুজুর রহমান, নিয়ামতুল্লাহ মাসুদ, রাকিবুল ইসলাম, ব্যবসায়ী নুর হোসেনসহ কয়েক শতাধিক কমিউিনিটির সিনিয়র সদস্য ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে কবিতা, কৌতুক, গান, নাটিকা পরিবেশন করেন জাকির হোসেন, হাফিজুর রহমান, মহউিদ্দনি ত্বকি, জামিলা ইয়াসমিন, আনোয়ার হোসেন রনি, বুরহান উদ্দিন, শহিদুল ইসলাম, নাজমুল, ইলিয়াস মোল্লা, সামিয়া, সুমাইয়া ফাইজা, সাওদা প্রমুখ।

এমআরএম/জেআইএম

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]