আন্তর্জাতিক সম্মেলনে বাংলাদেশের পতাকা বহন করলেন ইশরাত ইরিনা

প্রবাস ডেস্ক প্রবাস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:২২ পিএম, ২৫ জুলাই ২০২১

আন্তর্জাতিক সম্মেলন ‘ওয়ান ইয়ং ওয়ার্ল্ড সামিট-২০২১’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের পতাকা বহনকারী হিসেবে মনোনীত হয়ে দেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন ইশরাত ইরিনা।

সম্মেলনটি মিউনিখে ২২ জুলাই শুরু হয়ে ২৫ জুলাই শেষ হচ্ছে। যেখানে অলিম্পিয়াপার্ক এবং বিএমডব্লিউ ওয়েল্টসহ শহরটির সুপরিচিত স্থানগুলোতে ১৯০ দেশ থেকে ১৮শ’ এর বেশি তরুণ নেতা ব্যক্তিগতভাবে এবং ডিজিটালি জমায়েত হয়েছেন।

মূলত ১৯০টি দেশের ১৮শ’ এর বেশি প্রতিনিধি নিয়ে মিউনিখে শুরু হয়েছে একটি তরুণ বিশ্বের আনুষ্ঠানিক যাত্রা।

jagonews24

জানা গেছে, বার্ষিক ওয়ান ইয়ং ওয়ার্ল্ড সামিট প্রতিটি দেশ ও সেক্টর থেকে উজ্জ্বল তরুণ প্রতিভাবানদের আহ্বান করে থাকে এবং সামাজিক প্রভাবকে ত্বরান্বিত করতে তারা কাজ করে।

‘১৯০টিরও বেশি দেশের প্রতিনিধিদের মধ্যে ড. মোহাম্মদ ইউনুস, এমা ওয়াটসন, জাস্টিন ট্রুডো, পল পোলম্যান এবং মেগান মার্কলের মতো প্রভাবশালী রাজনৈতিক, ব্যবসায়িক এবং মানবিক কাজে নেতৃত্বদানকারী ব্যক্তিরা বক্তব্য ও পরামর্শ দিয়ে থাকেন।’

মিউনিখে একটি ইয়ং ওয়ার্ল্ডের আগমন বাভারিয়ান রাজধানীর জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তের প্রতিনিধিত্ব করে। এটি একটি প্রচলিত ঐতিহ্যবাহী এবং বিশ্বজনীন শহর হিসেবে মিশ্রণের জন্য খ্যাতিমান। মিউনিখ বিভিন্ন ধরনের সংস্কৃতি এবং অবসর সুযোগের জন্য এর উচ্চ আন্তর্জাতিকতা এবং জীবনযাত্রার মানের জন্য বিখ্যাত।

jagonews24

জনসংখ্যা ও প্রজনন স্বাস্থ্যের জন্য বিল ও মেলিন্ডা গেটস ইনস্টিটিউটের পরিবার পরিকল্পনা লিডার ইশরাত ইরিনা বলেন, ওয়ান ইয়ং ওয়ার্ল্ডের দশম আসরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের অফিসিয়াল পতাকা বহনকারী হিসেবে মনোনীত হওয়া এবং বাংলাদেশের পতাকা নিয়ে মঞ্চে সবার সামনে দাঁড়ানো আমার জন্য অনেক আনন্দের এবং গর্বের।

তিনি বলেন, ‘আমি স্বপ্ন দেখি আমরাও একদিন বাংলাদেশে এই রকম আন্তর্জাতিক সম্মেলনের আয়োজন করতে পারব। আমি এই অনুষ্ঠানে আমার অর্গানাইজেশন প্রেসক্রিপশন বাংলাদেশের ভবিষ্যত প্রজেক্ট পরিকল্পনা এবং ইতোমধ্যে বাংলাদেশে যে কাজগুলো করেছি সেগুলো তুলে ধরেছি।’

তিনি বলেন, ‘আমার এই সম্মেলনের সম্পূর্ণ খরচ বহন করছে সলিডারেট স্কলারশিপ। ফ্রি কিন্তু চান্স পেয়ে অংশগ্রহণ করতে গিয়ে অনেকটা পথ পাড়ি দিতে হয়েছে। বিভিন্ন দেশে এই সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিগত বছরগুলোতে লন্ডন, নেদারল্যান্ডস, কানাডাসহ আরও বেশ কয়েকটি দেশে এই আসর বসেছিল। আগামী বছর জাপানে অনুষ্ঠিত হবে এই সম্মেলনটি। আশা করছি, সেখানে আবার বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ পাব।’

এমআরএম/জেআইএম

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]