কুয়েতে বাংলাদেশি কোম্পানিতে কর্মী সংকট, ফিরতে চান আটকেপড়ারা

প্রবাস ডেস্ক প্রবাস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:০১ পিএম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

সাইফ আল রুবেল, কুয়েত থেকে

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কুয়েতে বাংলাদেশি মালিকানাধীন কোম্পানিগুলোতে অধিকাংশ শ্রমিক বাংলাদেশি। এসব কোম্পানিতে কর্মরত বহু প্রবাসী করোনাভাইরাসের কারণে দেশে ছুটিতে গিয়ে আটকা পড়েছেন। দক্ষ শ্রমিকরা আটকেপড়ায় কোম্পানিগুলোতে দেখা দিয়েছে শ্রমিক সংকট।

এসব সমস্যা সমাধানে আটকেপড়া প্রবাসীদের ফেরাতে বাংলাদেশ সরকার ও দূতাবাসের সহযোগিতা চেয়েছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। এই মুহূর্তে কুয়েত পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের রাষ্ট্রাচার প্রধান ড. আহমেদ নাসের আল সাবাহের সঙ্গে বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বৈঠক করা প্রয়োজন বলে মনে করেন দেশে আটকেপড়া আকামাবিহীন প্রবাসীরা।

বৈঠকে দুই দেশের মধ্যে বিদ্যমান সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক জোরদার, কাউন্সিলর সেবা, প্রশাসনিক বিষয়াদি এবং দূতাবাসে সেবা গ্রহণকারীদের জন্য পার্কিং সুবিধা নিয়েও আলোচনা প্রয়োজন।

এ প্রসঙ্গে কয়েকজন কুয়েত প্রবাসী ব্যবসায়ী বলেন, করোনার শুরুতে আমরা ছুটিতে এসে আর ফিরতে পারিনি। বারবার ফ্লাইট চালু হওয়ার কথা থাকলেও না হওয়ায় আমাদের আকামার মেয়াদ শেষ হয়ে যায়। ফলে আকামা নবায়ন করা সম্ভব হয়নি। যারা বাংলাদেশে আটকা পড়েছেন তাদের যদি দ্রুত ব্যবস্থা করে পুনরায় ফিরিয়ে নেওয়া যায় তাহলে সবাই অনেক উপকৃত হবে।

কুয়েত প্রবেশে কম ঝুঁকিপূর্ণ দেশের তালিকায় বাংলাদেশের নাম না থাকলেও, দেশটির সরকারের বিশেষ অনুমতিপত্র নিয়ে কিছু সংখ্যক প্রবাসী ফিরেছেন। তবে, আকামার মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় আটকা পড়াদের বড় অংশ এখনো ফিরতে পারেননি।

এমআরএম/এএসএম

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]