মালদ্বীপে বাংলাদেশ দূতাবাসে নববর্ষ-ঈদ পুনর্মিলনী

মোহাম্মদ মাহামুদুল
মোহাম্মদ মাহামুদুল মোহাম্মদ মাহামুদুল মালদ্বীপ প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৭:০১ পিএম, ২৮ মে ২০২২

আনন্দমুখর পরিবেশে বাংলা নববর্ষ ১৪২৯ বরণ ও ঈদ পুনর্মিলনী উদযাপন করেছে মালদ্বীপের বাংলাদেশ দূতাবাস। শুক্রবার (২৭ মে) দেশটির বাংলাদেশ দূতাবাস প্রাঙ্গণে বাঙালিয়ানা পরিবেশে দিনটি উদযাপন করে বাংলাদেশিরা।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বাংলাদেশ হাইকমিশনার রিয়ার অ্যাডমিরাল এস এম আবুল কালাম আজাদ বাংলা নববর্ষকে বাঙালি জাতির অসাম্প্রদায়িক চেতনার উৎস ও একান্তই আমাদের ইতিহাস ও ঐতিহ্যের শাশ্বত বাহক উল্লেখ করে বলেন, বাঙালি জাতির নিজস্ব পঞ্জিকাবর্ষের প্রথম দিনটি নববর্ষ হিসেবে দেশের সঙ্গে সঙ্গে বিদেশেও বর্ণাঢ্যভাবে উদযাপিত হয়।

রাষ্ট্রদূত, গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে, যিনি স্বাধীনতার পর ১৯৭২ সালে বাংলা নববর্ষকে রাষ্ট্রীয়ভাবে উদযাপনের ঘোষণা দেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাঙালির ইতিহাস-ঐতিহ্যের সঙ্গে বাংলা নববর্ষের ওতপ্রোত ভূমিকা উপলব্ধি করে বাংলা নববর্ষ ভাতা চালু করেছেন।

তিনি আশা প্রকাশ করেন, মালদ্বীপে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিরা নববর্ষ, রবীন্দ্র ও নজরুল জয়ন্তীর বিভিন্ন অনুষ্ঠান আয়োজনের মাধ্যমে নতুন প্রজন্মের মাঝে আবহমান বাংলার সংস্কৃতিকে ছড়িয়ে দেবেন।

jagonews24

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মিশনের প্রথম সচিব মোহাম্মদ সোহেল পারভেজ, তৃতীয় সচিব মোহাম্মদ মিজানুর রহমান ভূইয়া, সিআইপি মোহাম্মদ সোহেল রানা।

বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে প্রবাসীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- ড. খঃ লিয়াকত আলী, হেড অব কার্ডস অ্যান্ড ডিজিটাল ব্যাংকিং, মালদ্বীপ ইসলামিক ব্যাংক মো. আরেফুর রহমান চৌধুরী, ভিউ কনস্ট্রাকশন প্রাইভেট লিমিটেডের চেয়ারম্যান দুলাল হোসেন, ঢাকা ট্রেডার্স এর চেয়ারম্যান বাবুল হোসেন, ফোর এল ইন্টারন্যাশনাল এর চেয়ারম্যান হাদিউল ইসলাম, ফুড এন্ড ফুড ডিরেক্টর মোহাম্মদ নুরে আলম রিন্টু।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন এনবিএল মানি ট্রান্সফার প্রাইভেট লিমিটেডের কর্মকর্তা কর্মচারী, ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের কর্মকর্তা- কর্মচারী, ব্যবসায়ী, প্রবাসী ডক্টর’স, শিক্ষক ও বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতা, বিভিন্ন পেশাজীবীসহ প্রিন্ট মিডিয়ার স্থানীয় সাংবাদিক।

এরপর দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও স্থানীয় বাঙালিদের শিশু-কিশোরদের অংশগ্রহণে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এসময় বিজয়ীদের পুরস্কার দেওয়া হয়। বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী খাবার পরিবেশনের মাধ্যমে বাংলা নববর্ষ ও ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

এমআরএম/এএসএম

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]