মিশরে মেক্সিকান দূতাবাসে রজতজয়ন্তী পুরস্কার পেলেন আফছার হোসাইন

প্রবাস ডেস্ক
প্রবাস ডেস্ক প্রবাস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৪২ এএম, ২৩ জুন ২০২২
আফছার হোসাইনের হাতে রজতজয়ন্তী পুরস্কার তুলে দিচ্ছেন মেক্সিকান উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী কারমেন মোরেনো, পাশে মিশরে মেক্সিকান রাষ্ট্রদূত অক্টাভিউ ট্রিপ

মেক্সিকো সরকারের শীর্ষ বেসামরিক সম্মাননা ‘ওহটলি অ্যাওয়ার্ড’ ও আল-আহ্রাম পুরস্কারের পর এবার প্রবাসী বাংলাদেশি আফছার হোসাইন পেলেন মিশরে মেক্সিকান নাগরিকদের পরিষেবার স্বীকৃতি স্বরূপ রজতজয়ন্তী সম্মাননা।

মঙ্গলবার (২১ জুন) সন্ধ্যায় রাজধানী কায়রোস্থ মেক্সিকান দূতাবাসের কনফারেন্স রুমে এক ঘরোয়া অনুষ্ঠানে পুরস্কারটি আফছারের হাতে তুলে দেন মিশরে সফররত মেক্সিকান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী ‘কারমেন মোরেনো’।

jagonews24পুরস্কারপ্রাপ্ত অন্যান্যদের সঙ্গে আফছার হোসাইন

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- মন্ত্রীর সফর সঙ্গী, মিশরে মেক্সিকান দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত জোসে অক্টাভিউ ট্রিপ, দূতালয় প্রধান মিনিস্টার হেক্টর অরতেজা, দূতাবাসে কর্মরত সামরিক সচিব, অন্যান্য কূটনৈতিক ও দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

মিশরে মেক্সিকান দূতাবাসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আফছার হোসাইন দূতাবাসের ২৮ বছর পরিষেবা, মেক্সিকান নাগরিকদের সেবা ও সহযোগিতায় বিশেষ অবদান রাখায় তাকে এই সম্মাননায় ভূষিত করা হলো।

jagonews24অহটলি অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে মিশরে মেক্সিকান ও বাংলাদেশ রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে আফছার হোসাইন

রজতজয়ন্তী পুরস্কার পাওয়ার পর আফছার বলেন, যে কোনো পুরস্কারই আনন্দের, খুবই ভালো লাগছে। একটি ভিন্ন দেশের দূতাবাসে ২৮ বছর কাজ করার পর কাজের স্বীকৃতি পেলাম। যদিও এর আগে মেক্সিকান সরকারের শীর্ষ বেসামরিক পুরস্কার অহটলি পেয়েছি।

পুরস্কারটি পেয়ে আমি খুবই খুশি এবং অনুপ্রাণিত। এই পুরস্কার আমার দায়বদ্ধতা আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। ভবিষ্যতে আরও সুন্দরভাবে মন-প্রাণ দিয়ে ভালোভাবে কাজ করার আশাবাদ ব্যক্ত করেন এ বাংলাদেশি।

jagonews24

কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ উপজেলার গুজাদিয়া ইউনিয়নে টামনী আকন্দ পাড়ায় জন্ম নেওয়া আফছার হোসাইন মেক্সিকো দূতাবাসে চাকরি নিয়ে মিশর যান ১৯৯৫ সালে। তার দুই সন্তানের মধ্যে মেয়ে চিকিৎসক পুষ্প হোসাইন যুক্তরাজ্যের স্বাস্থ্য সংস্থা রিয়েল-ওয়ার্ল্ড এভিডেন্স (এইচসিডি) ইকোনমিক্স বিভাগের পরিচালক ও চেস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিদর্শনকারী প্রভাষক। ছেলে নাঈম হোসাইন কানাডায় বিশ্বের বৃহত্তম পেশাদার পরিষেবা নেটওয়ার্ক ‘দালোয়েত’র আইটি কনসালটেন্ট হিসাবে কাজ করছেন। তার স্ত্রী নাজমা হোসাইন কায়রোর একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতা করেন।

এমআরএম/এএসএম

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]