মালদ্বীপে এমআই কলেজের সমাবর্তন

মোহাম্মদ মাহামুদুল
মোহাম্মদ মাহামুদুল মোহাম্মদ মাহামুদুল মালদ্বীপ
প্রকাশিত: ১০:৫৬ এএম, ২৭ নভেম্বর ২০২২

মালদ্বীপ প্রবাসী বাংলাদেশি ও উদ্যোক্তা আহমেদ মোক্তাকিরের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমআই ইন্টারন্যাশনাল কলেজের জাঁকজমকপূর্ণ সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এরই মধ্যে কলেজটি ১৬ বছরে পদার্পণ করলো।

বর্তমানে মালদ্বীপের বিভিন্ন দ্বীপে এমআই কলেজের ১৭ শাখায় ৩ হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থী রয়েছেন। তাদের বেশিরভাগই মালদ্বীপের নাগরিক। ২০০৬ সালে বাংলাদেশি আহমেদ মোক্তাকির প্রতিষ্ঠিত কলেজটি মালদ্বীপের শিক্ষা প্রসারে গুরুত্ব অবদান রাখছে।

mal

প্রতিষ্ঠার ১৬ বছরে শিক্ষাক্ষেত্রে অনেক সফলতা অর্জন করেছেন মিয়াঞ্জ ইন্টারন্যাশনাল কলেজ। তবে কৃষি কোর্স পরিচালনা কৃষি ও গবেষণায় তাদের সাফল্য চোখে পড়ার মতো। আগামীতে কলেজটিকে একটি পরিপূর্ণ বিশ্ববিদ্যালয়ের রূপান্তর করার স্বপ্ন দেখছেন তিনি।

শনিবার ২৬ নভেম্বর মালদ্বীপের রাজধানী মালে গিয়াসুদ্দিন ইন্টারন্যাশনাল স্কুল হল রুমে সকাল থেকে শুরু হয়ে স্থানীয় সময় রাত ১১টা পর্যন্ত চলে এই সমাবর্তন অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন মালদ্বীপের শিক্ষামন্ত্রী ড. ইব্রাহিম হাসান।

mal

সমাপনী বক্তব্যে হাই কমিশনার রিয়ার অ্যাডমিরাল এস এম আবুল কালাম আজাদ স্নাতক উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের আন্তরিক অভিনন্দন জানান এবং শীর্ষ মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের প্রতি ডিগ্রি ও পদক বিতরণ করেন। তিনি শিক্ষার্থীদের অর্জিত শিক্ষা বাস্তব জীবনে প্রয়োগ করে নিজ দেশ এবং বিশ্বের কল্যাণে অবদান রাখার জন্য অনুপ্রেরণা দেন।

হাইকমিশনার বলেন, বাংলাদেশি মালিকানাধীন আহমেদ মোক্তাকির প্রতিষ্ঠিত মিয়াঞ্জ ইন্টারন্যাশনাল কলেজেটির কৃষি বিষয়ক কোর্স পরিচালনায় এবং গবেষণায় তাদের সাফল্য চোখের পড়ার মতো। যা মালদ্বীপে প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য সুনাম অর্জনের এক মাইলফলক।

mal

অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন মালদ্বীপে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার রিয়েল অ্যাডমিরাল এস এম আব্দুল কালাম আজাদ। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন চ্যানেলের আইয়ের পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ।

সমাবর্তন অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন মিয়াঞ্জ ইন্টারন্যাশনাল গ্রুপের চেয়ারম্যান প্রবাসী বাংলাদেশিদ নাগরিক, শিক্ষা উদ্যোক্তা আহমেদ মোত্তাকি এবং মিয়াঞ্জ ইন্টারন্যাশনাল গ্রুপের সিইও) মোহাম্মদ হালিম।

mal

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মিয়াঞ্জ ইন্টারন্যাশনাল কলেজের ডিরেক্টর, লামিয়া আব্দুল হাদি, শাহানা সিরাজসহ আরও অনেক মালদ্বীভিয়ান নাগরিক।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার শাহবাজপুরের মিয়াবাড়ির আহমেদ মোক্তাকি ৩০ বছর ধরে মালদ্বীপপ্রবাসী। প্রবাস জীবন দেশটির সরকারি স্কুলে শিক্ষকতা দিয়ে শুরু করলেও এখন তিনি একজন বাংলাদেশি শিক্ষা উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ী।

mal

তার মালিকানার মিয়াঞ্জ ইন্টারন্যাশনাল গ্রুপ মালদ্বীপে বাংলাদেশি খাদ্য ও কৃষিপণ্যের বড় আমদানিকারক খ্যাতি পেয়েছে। এছাড়াও বিপুল সংখ্যার বাংলাদেশির কর্মসংস্থানের সুযোগ হয়েছে।

এমআরএম/এমএস

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]