আসির প্রদেশে প্রবাসী সেবাকেন্দ্র স্থাপনে গণস্বাক্ষর কর্মসূচি

ক ম জামাল উদ্দীন ক ম জামাল উদ্দীন , আসির প্রদেশ, সৌদি আরব
প্রকাশিত: ০১:২৯ পিএম, ২১ জানুয়ারি ২০১৮

আসির প্রদেশে প্রবাসী সেবাকেন্দ্র স্থাপনে প্রয়োজনীয়তা যাচাইকল্পে গণস্বাক্ষরতা কর্মসূচির পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে বঙ্গবন্ধু পরিষদ আসির প্রদেশ কেন্দ্রীয় কমিটি।

গণস্বাক্ষর কর্মসূচির উদ্বোধন উপলক্ষে খামিস মুশাইতস্থ বাঙালি মার্কেটের সামনে গত শুক্রবার (১৯ জানুয়ারি) এক পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় প্রবাসী বাংলাদেশিরা বিভিন্ন জোনে বিভক্ত হয়ে প্রদেশের বিভিন্ন এলাকায় স্বাক্ষরগ্রহণ করার জন্য পরিকল্পনা করেন।

পথসভায় বক্তব্য রাখেন সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা আবু বকর কামাল, ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আলহাজ বেলাল উদ্দীন, এস এম জাহাঙ্গীর আলম, নুরুল আবসার, আজাদ রহমান, কামাল উদ্দিন, রহিম উদ্দিন, ফারুক রহমান, আব্দুল করিম, সালাহ উদ্দীন প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, আসির প্রদেশে প্রবাসী সেবাকেন্দ্র স্থাপন এখন সময়ের দাবি। এ সময় প্রদেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আগত বাংলাদেশিরা এ দাবির প্রতি হাত নেড়ে সমর্থন ব্যক্ত করেন।

উল্লেখ্য, সৌদি আরবকে চারটি বৃহত্তর প্রদেশে ভাগ করা হয়েছে। যথা- আল হেজাজ, আল নজদ, আল হাসা ও আসির। সৌদি আরবের দক্ষিণ-পশ্চিামাঞ্চল নিয়ে গঠিত আসির প্রদেশ যা সৌদি আরবের বৃহত্তর চারটি প্রদেশের একটি। বিভিন্ন মনতাকা তথা এলাকা বেষ্টিত আসির প্রদেশ।

এলাকাগুলো হলো- আবহা, খামিস মুশাইত, মাহাইল, আল মাজারদা, জিজান, দরব, শিগিক, নাজরান, জাহারান আল জুনুব, ছরাত আবিদা, তরিব, তাসলিছ, মাদ্দা, বিশা, তানদাহা, খামিস মুতাইর, রিজিল আলমা, খামিস আল বাহার, আল নামাস ও ছবত আল আলাইয়া ইত্যাদি।

বিভিন্ন সমীক্ষা ও প্রবাসীদের থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী আসির প্রদেশে ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, শিক্ষকসহ বিভিন্ন পেশাজীবীর প্রায় পাঁচ লাখ বাংলাদেশি প্রবাসী কর্মরত। ২০১৭ সালে আরব লিগ জিসিসি দেশগুলোর মধ্য থেকে আসির প্রদেশের রাজধানী আবহাকে পর্যটনের রাজধানী ঘোষণা করা হয়েছে। সে সুবাধে আসির প্রদেশ তথা আবহায় পর্যটকদের আনাগোনা লক্ষ্য করা যায়।

এর আগে, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রামের আওতায় সৌদি আরবের মদিনা, জেদ্দা ও দাম্মামে পরীক্ষামূলকভাবে ‘প্রবাসী সেবাকেন্দ্র’ চালু করা হয়েছে।

বিএ/এমএস

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :