লেবাননে তেলবাহী ট্রাক খাদে পড়ে বাংলাদেশি নিহত

বাবু সাহা
বাবু সাহা বাবু সাহা লেবানন
প্রকাশিত: ০১:২৩ এএম, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ছোটবেলায় বাবাকে হারান খুরশীদ আলম। ৪ ভাই ৩ বোনের সংসারে ভাইদের মধ্যে তৃতীয় খুরশীদ অসচ্ছল পরিবারে সচ্ছলতা আনার আশায় দীর্ঘ তিন বছর আগে লেবাননে যান। তার উপার্জনের টাকায় চলছিল তাদের সংসার। ফোনে মাকে বলেছিলেন, আগামী বছর দেশে আসবেন। স্বপ্ন ছিল দেশে গিয়ে বাড়ির কাজ ধরবেন।

খুরশীদকে নিয়ে স্বপ্ন বুনেছিল মা ও পরিবারের অন্যরা। কিন্তু একটি মাত্র দুর্ঘটনায় শেষ হয়ে গেলো সবার সোনালী স্বপ্ন। খুরশীদ চলে গেলেন না ফেরার দেশে।

শুক্রবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সময় দুপুর আড়াইটায় লেবাননের রাজধানী বৈরুতের আরাইয়ের হাইরোডে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তেলবাহী ট্রাক খাদে পড়ে প্রাণ হারান বাংলাদেশি রেমিট্যান্স যোদ্ধা মো. খুরশীদ আলম (৩০)।

তার বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আশুগঞ্জ উপজেলার বড়তলা গ্রামে। বাবার নাম হাবিবুর রহমান ধন মিয়া।

জানা যায়, খুরশীদ বৈরুতের পূরণ সুব্বেক এলাকায় মেডকো কোম্পানির একটি পেট্রল পাম্পে বৈধভাবে কাজ করতেন। প্রতিদিনের মতো শুক্রবার দুপুরে কোম্পানির ডিজেলবাহী ট্রাকে করে গিয়েছিলেন একটি কোম্পানিতে ডিজেল সরবরাহ করতে। লেবানিজ ড্রাইভারের বামপাশে বসে ছিলেন খুরশীদ আলম। আরাইয়ের হাইরোড অতিক্রম করার সময় ট্রাকটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তা থেকে ছিটকে প্রায় ১০০ ফুট নিচে খাদে পড়ে যায়। দুর্ঘটনায় গাড়িটির সামনের অংশ দুমড়েমুচড়ে যায়।

পরে পুলিশ এসে খুরশীদ আলমসহ লেবানিজ ড্রাইভারকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাদের দুজনকেই মৃত ঘোষণা করে। তাদের মরদেহ আরাইয়ের স্থানীয় আরনাইয়েল হাসপাতালের মর্গে আছে।

একমাত্র উপার্জনক্ষম খুরশীদ আলমের অকাল মৃত্যুতে পরিবারসহ গোটা এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তার মা বাংলাদেশ দূতাবাসের কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন সন্তানের মরদেহটি যেন দ্রুত দেশে ফেরত পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়।

জেডএ

 

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - jagofeature@gmail.com