দুবাইয়ে গাল্ফফুডে বাংলাদেশি পণ্যের চাহিদা বেড়েছে

মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন
মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন , আমিরাত প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৪:০০ এএম, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০

সংযুক্ত আরব আমিরাতের বাণিজ্যিক রাজধানী দুবাইয়ে বসেছে গাল্ফফুডের ২৫তম আসর। এবারের আসরে ১৪০টি দেশ অংশ নিয়েছে। মেলায় দেশি খাদ্যপণ্যের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। বিদেশিরা আগ্রহের সাথে ঝুঁকছেন বাংলাদেশি পণ্যে।

দুবাইয়ে ১৬ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হয়েছে গাল্ফফুডের ২৫তম আসর। ১৪০টি দেশের অংশগ্রহণে জমে ওঠেছে এবারের এ খাদ্যপণ্যের মেলা। এটি চলবে ২০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। বাংলাদেশের গার্মেন্ট শিল্পের মতো খাদ্যপণ্য অর্থনীতির বিশাল খাত বলে জানিয়েছেন দুবাইয়ে নিযুক্ত কনসাল জেনারেল মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন খান।

প্রায় ৫ হাজার দর্শনার্থী প্রতিদিন ভিড় করছেন মেলায়। বাংলাদেশের অর্ধশত স্টল দেশকে উপস্থাপন করছে সুন্দরভাবে। এই মেলা দুবাইয়ে অনুষ্ঠিতব্য এক্সপোতে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি সহজ করছে বলে মন্তব্য করেছেন, বাংলাদেশ কনসুলেট, দুবাইয়ের কমার্শিয়াল কাউন্সেলর কামরুল হাসান।

বাংলাদেশি খাদ্যের নীতিবাচক একটি প্রচারণা দেশে থাকলে দিনেদিনে ইতিবাচকভাবে আন্তর্জাজিক অঙ্গনে দেশের পণ্য বাজারজাত হচ্ছে। ২০০৪ সালে ২.৯ মিলিয়ন ডলার খাদ্যপণ্যে এক্সপোর্ট থাকলেও গত বছরে তা দাঁড়িয়েছে ৫০০ মিলিয়ন ডলারে। দেশের এসব পণ্য বিদেশে বাজারজাত করতে উদ্যোক্তাদের আন্তরিকতার অভাব নেই জানিয়েছেন বাংলাদেশ এগ্রো প্রসেসরস অ্যাসোসিয়েশনের (বাপা) সহ-সভাপতি সৈয়দ মো. শোয়াইব হাসান।

বিশ্ববাজারে বাংলাদেশর এমন অগ্রযাত্রায় খুশি প্রবাসীরাও। এভাবে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে মান পাক দেশের পণ্য, এমনটিই চান সাধারণ প্রবাসীরা।

এমআরএম

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - jagofeature@gmail.com