মিশিগানে কখন কোথায় ঈদের জামাত

প্রবাস ডেস্ক প্রবাস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৪৩ এএম, ৩১ জুলাই ২০২০

তোফায়েল রেজা সোহেল, ওয়ারেন

আগামীকাল ৩১ জুলাই পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে। মিশিগান অঙ্গরাজ্যে কোথায় কখন ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে তা নির্ধারণ করা হয়েছে। করোনাভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে উন্মুক্তস্থানের পরিবর্তে ঈদের জামাত হবে শুধুমাত্র মসজিদে।

রাজ্যের চারটি সিটির ১৫টি মসজিদে পৃথক ৩০টি জামাত অনুষ্ঠিত হবে। অনেক মসজিদে দুই থেকে চারটি করে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ৭টা ১৫ মিনিট থেকে সকাল ১০টার মধ্যে জামাত হবে বলে মসজিদ কমিটি সূত্রে জানা গেছে।

ড্রেট্রয়েট সিটির মসজিদ আল ফালাহ্ সকাল ৮টায় প্রথম জামাত শুরু হবে। দ্বিতীয় জামাত ৯টায় ও তৃতীয় জামাত ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে। একই সিটির মাসজিদুন নূরে দুটো ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। প্রথমটি হবে সকাল ৮টায় ও দ্বিতীয়টি ৯টায়। বায়তুল ইসলাম মস্কো এ সকাল সাড়ে ৮টায় জামাত হবে।

ওয়ারেন সিটির মসজিদ আল ফাতাহ্ তিনটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে। প্রথমটি সকাল সাড়ে ৭টায়, দ্বিতীয়টি সাড়ে ৮টায় ও তৃতীয় জামাত সাড়ে ৯টায় অনুষ্ঠিত হবে। একই সিটির দারুল কোরআন মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে দুটো জামাত। প্রথমটি শুরু হবে সকাল ৭টা ১৫ মিনিটে। এরপর সাড়ে ৮টায়।

দারুল উলুম মিশিগানে প্রথম জামাত সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে ও দ্বিতীয় জামাত ৮টা ৪৫ মিনিটে অনুষ্ঠিত হবে। আয়না মসজিদে প্রথম জামাত সকাল সাড়ে ৮টায় ও দ্বিতীয় জামাত সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে। আল হাসান ইসলামিক সেন্টারে সকাল ৮টায় ও ৯টায় জামাত হবে। এছাড়া সিডিআর মসজিদে সকাল ৯টায় একটি মাত্র জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলা টাউন খ্যাত হ্যামট্রামিক সিটির আল ইসলাহ্ মসজিদে পৃথক তিনটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে। প্রথমটি সকাল ৮টায়, ৯টায় ও শেষ জামাত ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে। একই সিটির বায়তুল মোকাররম মসজিদে সকাল সাড়ে ৭টায় একটি মাত্র জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

মসজিদ আল-ইসানে দুটো জামাত হবে। প্রথমটি হবে সকাল ৮টায় ও দ্বিতীয়টি হবে সকাল ৯টায়। বায়তুল মা মোর সুন্নী মসজিদে সকাল সাড়ে ৮টায় একটি মাত্র জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

স্টাইলিংহাইটস সিটির মসজিদ বায়তুল মামুর সকাল সাড়ে ৮টায় ও সকাল সাড়ে ৯টায় দুটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে। একই সিটির এমদা মসজিদে ঈদের চারটি পৃথক জামাত হবে। প্রথম জামাত সকাল সাড়ে ৭টায়, দ্বিতীয় জামাত সাড়ে ৮টায়, তৃতীয় জামাত সাড়ে ৯টায় ও শেষ জামাত সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে।

এমআরএম

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]