সুদানে অ্যাওয়ার্ড পেল বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিট

প্রবাস ডেস্ক প্রবাস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:০৪ এএম, ০৯ আগস্ট ২০২০

সুদানের দারফুরে উনামিড মিশনের পুলিশ কমিশনার জুনে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখায় এফপিইউ কন্টিনজেন্ট ও টিম সাইটে কর্মরত অফিসারদের বিভিন্ন বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখায় পুরস্কৃত করেন।

বর্তমানে কোভিড-১৯ মহামারি আকারে বিশ্বজুড়ে আবির্ভূত হয়েছে। বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিটের কমান্ডার মোহাম্মদ আব্দুল হালিমের নেতৃত্বে শুরু থেকেই কোভিড-১৯ নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে।

কোভিড-১৯ বিস্তাররোধে বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিট এলফেশার সুপার ক্যাম্পে কর্মরত স্থানীয় কর্মীদের মাঝে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, মাস্ক এবং পিপিই বিতরণ, সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে মেডিকেল ক্যাম্পেইন পরিচালনাসহ পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম পরিচালনা করে।

যার ফলশ্রুতিতে বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিট উনামিড পুলিশ কমিশনার কর্তৃক প্রশংসিত হয়। বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিটের কন্টিনজেন্ট কমান্ডার মোহাম্মদ আব্দুল হালিম ‘স্পেশাল অ্যাওয়ার্ড ফর কোভিড-১৯ হিরোস’ নির্বাচিত হন।

উনামিড পুলিশ কমিশনার ড. সুলতান তিমুরী বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিটের কর্মকাণ্ডের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং ভবিষ্যতেও বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিট তাদের কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

উনামিডের নর্থ দারফুরের সকল কন্টিনজেন্টের মধ্যে কোভিড-১৯ নিয়ন্ত্রণে সফলতার জন্য এ পুরস্কার প্রদান করা হয়। ইতোপূর্বে উনামিড জয়েন্ট স্পেশাল রিপ্রেজেনটেটিভ (জেএসআর) কিন্সলে মামাবলো কর্তৃক সার্টিফিকেট অফ এপ্রিসিয়েশন, পুলিশ কমিশনার কর্তৃক বেস্ট কন্টিনজেন্ট কমান্ডারসহ ৪টি সার্টিফিকেট অ্যাওয়ার্ড বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিট কন্টিনজেন্ট কমান্ডার মোহাম্মদ আব্দুল হালিম প্রাপ্ত হন।

এমআরএম

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]