ইতালিতে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স প্রেরণকারী প্রবাসীদের সম্মাননা

জমির হোসেন
জমির হোসেন জমির হোসেন , ইতালি প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৮:৩৪ এএম, ১৬ জানুয়ারি ২০২১

‘আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস ২০২০’ উপলক্ষে ইতালির বাংলাদেশ দূতাবাসে একজন নারীসহ ৫ প্রবাসী বাংলাদেশি এবং একটি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানকে রেমিট্যান্স পুরস্কার দেয়া হয়েছে। শুক্রবার (০৮ জানুয়ারি) বিকেলে দূতাবাস আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তাদের পুরস্কার প্রদান করা হয়।

ইতালি থেকে বাংলাদেশে জুলাই ২০১৯-জুন ২০২০ সময়ের মধ্যে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স প্রেরণকারী হিসেবে তাদের এ পুরস্কার দেয়া হয়। ইতালিতে নিযু্ক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. শামীম আহসান পুরস্কার বিতরণ করেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে দূতাবাসের কাউন্সেলর (শ্রমকল্যাণ) মো. এরফানুল হক প্রবাসীদের অধিকার রক্ষা, তাদের কল্যাণ এবং বৈধপথে রেমিট্যান্স প্রেরণে প্রবাসীদের উদ্বুদ্ধকরণে বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের ওপর একটি প্রতিবেদন পেশ করেন। রেমিট্যান্স পুরস্কার অর্জনকারী ব্যক্তিরাও অনুষ্ঠানে বক্তব্য প্রদান করেন এবং এ স্বীকৃতি প্রদানের জন্য দূতাবাসকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

রাষ্ট্রদূত মো. শামীম আহসান তার বক্তব্যে পুরস্কার প্রাপ্তদের আন্তরিক অভিনন্দন জানান এবং রেমিট্যান্স প্রেরণের মাধ্যমে দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখার জন্য প্রবাসী সকল বাংলাদেশিকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন এবং বর্তমান সরকারকে প্রবাসী-বান্ধব সরকার উল্লেখ করে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপ তুলে ধরেন। করোনা মহামারির সময় বিভিন্ন দেশে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের দেশে ফেরত আনা এবং চাকরি হারানো ক্ষতিগ্রস্ত প্রবাসীদের বাংলাদেশ সরকারের আর্থিক সাহায্য প্রদানের বিষয়টিও উল্লেখ করেন।

২০২০ সালের রেমিট্যান্স পুরস্কার প্রাপ্তরা হলেন : কার্তিক চন্দ্র ঘোষ, সৈয়দ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ, মো. সফিউল্লাহ, কামরুল হাসান এবং মেহেনাস তাব্বাসুম। প্রতিষ্ঠান ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পেয়েছে বাংলা এসআরএল (Bangla SRL)।

বৈধপথে রেমিট্যান্স প্রেরণকারীদের উৎসাহ দিতে ২০১৯ সালে ইতালির বাংলাদেশ দূতাবাস রেমিট্যান্স পুরস্কার চালু করে। অনুষ্ঠানে দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং পুরস্কারপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

জমির হোসেন/এমএইচআর/এমকেএইচ

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]