গণ্ডারের বাচ্চা নেলসনের প্রতি অন্যরকম ভালোবাসা

রহমান মৃধা
রহমান মৃধা রহমান মৃধা
প্রকাশিত: ০৭:৪৬ পিএম, ২৩ জানুয়ারি ২০২১

আমি সুইডেনে বহু বছর ধরে বসবাস করছি। বাংলাদেশে খবরের ধরনের সঙ্গে বেশ অমিল রয়েছে এখানকার খবর প্রচারে। বলতে হবে কিছুটা ভিন্ন ধরনের খবর যা পাঠকের মন কেড়ে নেয় মাঝে মধ্যে। যেমন একটি উদাহরণ দেই।

সেদিন সকাল হতেই দেশের টেলিভিশন থেকে শুরু করে খবরের কাগজসহ সবার মুখে একটিই আলোচনার বিষয় নেলসনের জন্ম নিয়ে। স্টকহোমের অদূরে নরসোপিং-এর কোলমর্ডেন চিড়িয়াখানায় একটি গণ্ডার বাচ্চা প্রসব করেছে, তার নামকরণ করা হয় নেলসন।

আমি ছাড়া সবাই বিষয়টিকে বেশ বড় করে দেখেছে। কারণ আমি তখন ভাবছি দুনিয়ায় এত কিছু ঘটে চলছে তার মধ্যে কী এমন বিষয় হলো যে একটি গণ্ডারের জন্ম নিয়ে এত আলোচনা! একজন সুইডিশ সাংবাদিক বন্ধুকে বিষয়টি জিজ্ঞেস করেছিলাম কী কারণ এর পেছনে? জানলাম এর আগে মা গণ্ডারটা পরপর দুইটি সন্তান হারায় যা ছিল খুবই দুঃখের। এবারের বাচ্চা নেলসনের জন্ম নতুন আশার আলো বয়ে নিয়ে এসেছে নতুন করে।

এত বছর পর এমন একটি সুখের খবর, এটাই সবাইকে উৎফুল্ল করেছে। তারপর প্রতিদিন একই ধরনের খবর শুনতে শুনতে মানুষের ভালো লাগে না। শেষে চোখ কান বন্ধ করে সবাই সব দেখে শুনে ঠিকই, তবে প্রতিক্রিয়া দেখায় না।

কথাগুলোর মধ্যে বেশ যুক্তি খুঁজে পেলাম। যেমন ধরুন দেশে দুর্নীতি, অনীতি, ধর্ষণ, গুম, অবিচার এসব খবর শুনতে শুনতে তেমন প্রতিক্রিয়া হয় না কারও মধ্যে। কারণ মানুষ পরিবর্তনের কাঙ্গাল, একই জিনিসে সন্তুষ্ট নয়। যাইহোক নেলসনের কথা অনেকদিন শোনা হয়নি। এবার সামারে নরসোপিং-এ গিয়ে দেখে আসব তাকে।

ও ভালো কথা, এখানে পশুপক্ষীর নাম বড় বড় নামিদামি মানুষের নামে রাখা হয়, যেমন নেলসনের মাকে প্লেনে করে আফ্রিকা থেকে সুইডেনে আনা হয়েছে। সেদেশের সেরা নামকরা মানুষটি নেলসন ম্যান্ডেলা। তার নামের সঙ্গে মিল রেখে কোলমর্ডেন চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ গণ্ডারের বাচ্চার নাম নেলসন রেখেছে। অনেকে তার বাসার কুকুরের নাম আদর করে গুস্তাভ রাখে। গুস্তাভ সুইডেনের রাজার নাম।

অনেকে দেখা যায় ছোট্ট একটি শিশুকে আদর করে বলে ‘মিন লিললা গ্রিস উংয়ে।’ আমাদের দেশে আদর করে অনেকে নিজের শিশুকে বাঘের বাচ্চা বলে। সবকিছু দেখে শুনে এতটুকু বুঝেছি মহান আল্লাহ পাক রাব্বুল আল-আমিন এতকিছু সৃষ্টি করেছেন যার পেছনে কারণ রয়েছে। সব কারণ জানা হয়নি আজও, তবে খুব জানতে ইচ্ছে করে।

লেখক: রহমান মৃধা, সাবেক পরিচালক (প্রোডাকশন অ্যান্ড সাপ্লাই চেইন ম্যানেজমেন্ট), ফাইজার, সুইডেন থেকে, [email protected]

এমআরএম/এমকেএইচ

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]