মিসরে আন্তর্জাতিক ঢোল উৎসবে বাংলাদেশ

প্রবাস ডেস্ক প্রবাস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:৫৯ পিএম, ১৫ জুন ২০২১

রাজধানী কায়রোর সুলতান সালাহ উদ্দিন আইয়ুবী দুর্গের বীর ইউসুফ (ইউসুফ কুয়া) থিয়েটারে শুরু হয়েছে সপ্তাহব্যাপী আন্তর্জাতিক ঢোল ও ঐতিহ্যবাহী লোকশিল্প উৎসব।

শনিবার (১২ জুন) মিসরের পর্যটন ও পুরাকীর্তি মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় আন্তর্জাতিক ঢোল ও ঐতিহ্যবাহী লোকশিল্প উৎসব উদ্বোধন করেন দেশটির সংস্কৃতিমন্ত্রী এনাস আবদেল দাইম।

শান্তির জন্য ঢোল স্লোগান নিয়ে বাংলাদেশ, মিসর, সিরিয়া, সুদান, দক্ষিণ সুদান, ইয়েমেন, প্যালেস্টাইন, ইন্দোনেশিয়া, কলম্বিয়া, ফিলিপাইন, কঙ্গোসহ ৩০টিরও বেশি ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতি দল অংশ নেয় এই উৎসবে।

jagonews24

কায়রোস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের সার্বিক তত্ত্বাবধানে কর্মকর্তারা, তাদের সহধর্মিণী ও প্রবাসী বাংলাদেশি শিল্পীরা অংশ নেয় আন্তর্জাতিক এই উৎসবে।

রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম বলেন, অন্যান্য বছর কায়রো ঢোল উৎসবে বাংলাদেশ থেকে সাংস্কৃতিক দল এসে যোগ দিলেও এবার করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে তা সম্ভব হয়নি। তাই আমরা নিজেরাই দূতাবাসের সহকর্মী ও কয়জন প্রবাসী বাংলাদেশিদের নিয়ে কিছুদিন গান ও বাদ্যযন্ত্রের মহড়া করে এই ঢোল উৎসবে যোগ দেই। যা দেখে ও শুনে অন্যান্য দেশের দূতাবাসগুলো অবাক হয়েছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ-মিসের বন্ধুত্বের দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে এবং কায়রো-ঢাকা বিনিময় ও সহযোগিতা গভীরতর হচ্ছে। আন্তর্জাতিক ঢোল ও লোকশিল্প উৎসবটি দুই দেশের সংস্কৃতির অঙ্গনের দ্বার আরো উন্মুক্ত করবে।

jagonews24

মিসরসহ মধ্যপ্রাচ্যের বেশ কয়েকটি জনপ্রিয় টেলিভিশন চ্যানেল আন্তর্জাতিক ঢোল উৎসব অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করে ও মিসরের গণমাধ্যমে বেশ গুরুত্ব সহকারে বাংলাদেশের নাম ও অনুষ্ঠানটির কথা তুলে ধরা হয়। কায়রো ও অন্যান্য শহর থেকে আগত স্থানীয়সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের হাজার হাজার দর্শক ঢোল উৎসবটি উপভোগ করে।

এমআরএম/এমকেএইচ

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]