রোমের সিটি নির্বাচনে লড়ছেন বাংলাদেশি পাপিয়া

জমির হোসেন
জমির হোসেন জমির হোসেন , ইতালি প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০১:২৮ এএম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

আগামী ৩-৪ অক্টোবর ইতালির রোমে সিটি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনে প্রথমবারের মতো একাধিক বাংলাদেশি প্রার্থী রয়েছেন। তাদের মধ্যে পাপিয়া রোমের পার্শ্ববর্তী শহর ফ্রাসকাটি নির্বাচনী এলাকা থেকে ভোটে অংশ নিচ্ছেন।

ইতালির অন্যতম দল ডেমোক্রেটিকের (পিডি) সমর্থন নিয়ে পাপিয়া ইতালিয়ান প্রার্থীদের বিরুদ্ধে লড়বেন। তিনি তার নির্বাচনী এলাকায় ভোটারদের সঙ্গে নানা বিষয়ে মতবিনিময় অব্যাহত রেখেছেন।

পাপিয়া আক্তার জন্মগ্রহণ করেন বাংলাদেশে। বেড়ে উঠেছেন রোমের ফ্রাসকাটি শহরে তার বর্তমান নির্বাচনী এলাকায়।। এ শহরেই দীর্ঘ ২৫ বছরের বেশি বসবাস করছেন তিনি।

কর্মজীবনের শুরু ইতালির ন্যাশনাল সিভিল সার্ভিসে কাজের মাধ্যমে। এরপর আরসি রোমার নির্বাচিত ডিরেক্টর ও বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের অভিবাসীদের জন্য আইনি নির্দেশিকা ডেস্কে দায়িত্বপ্রাপ্ত একজন কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করেন।

এছাড়াও পাপিয়া বিভিন্ন আশ্রয়প্রার্থী ও শরণার্থী প্রকল্পের আইনি সহায়তাদানকারী, নিপীড়িত মানুষের জন্য আন্তর্জাতিক সুরক্ষা চাওয়া ও বিশেষ করে নারীদের জন্য নিবেদিত হয়ে সহায়তা দিতে কাজ করছেন। ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে তিনি ইতালিতে সরকারি ও বেসরকারি উভয় সংস্থার সঙ্গে বাংলাদেশিদের সাংস্কৃতিক মধ্যস্থতাকারী হিসেবে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন।

অন্যদিকে স্বাস্থ্য সুরক্ষা, বৈষম্যহীনতা, মানবাধিকার ও নারী অধিকার রক্ষাসহ সব ধরনের সহিংসতার বিরুদ্ধে লড়াই করছেন তিনি। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের কয়েক হাজার অভিবাসীদের বিনামূল্যে আইনি সহায়তা ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় কাজ করেছেন তিনি। এখনও তার এ ধরনের কাজ অব্যাহত রয়েছে।

পাপিয়া আক্তার সবসময় সামাজিক কাজে জড়িত ছিলেন এবং শহরের মান বৃদ্ধির প্রতি তিনি প্রতিশ্রুতিবব্ধ। তার ব্যক্তিগত জীবন ও কর্মজীবনের অভিজ্ঞতা থেকে তিনি শিখেছেন সবার উন্নতি মানেই সমাজের উন্নতি। সমাজের উঁচু-নিচু প্রত্যেক স্তরের নাগরিকদের ক্ষমতায় অংশগ্রহণে বিশ্বাসী তিনি।

পাপিয়ার নির্বাচনী এলাকা ফ্রাসকাটিতে নাগরিকদের জন্য তিনি এমন একটি প্রশাসন চাচ্ছেন, যা অর্থনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক উন্নতিসহ শহরের মান বৃদ্ধিতে গুরুত্ব দেবে ও বাস্তবায়ন করবে। এর ফলে আরও আধুনিক, উন্নত, মানবিক ও জনগণের অন্তর্ভুক্তিমূলক শহরে উন্নীত করাই তার লক্ষ্য।

সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে নিজের প্রতিশ্রুতিগুলো তুলে ধরেন পাপিয়া। তিনি মনে করেন, অধিক সম্পদ শুধু নয়, জনগণের স্বতঃস্ফূর্ত ব্যক্তি ও কর্মজীবনের সম্মিলিত একটি শহরই হলো নিরাপদ ও আদর্শ শহর।

পাপিয়া বলেন, ‘আপনাদের মাধ্যমে আমি আমার প্রিয় জন্মভূমির সব বাংলাদেশি জনগণের কাছে দোয়া প্রত্যাশা করি। আসন্ন নির্বাচনে জয়ী হয়ে প্রবাসে দেশবাসীর সুনাম বৃদ্ধিতে আমি কাজ করতে চাই।’

পাপিয়া ছাড়াও আসন্ন নির্বাচনে আরও লড়ছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ইতালিয়ান নাগরিক পৌর প্রেসিডেন্ট প্রার্থী কে এম লোকমান হোসেন, কাউন্সিলর লায়লা শাহ, সাংবাদিক জুমানা মাহমুদ, ওয়াদুদ মিয়া, আব্দুল ওয়াদুদ মিয়া, শহীদ উল্লাহ প্রমুখ।

এএএইচ/এআরএ

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]