গ্রিসে বাংলাদেশি শিল্পীদের চিত্র প্রদর্শনী

মতিউর রহমান মুন্না
মতিউর রহমান মুন্না মতিউর রহমান মুন্না , গ্রিস প্রতিনিধি গ্রিস
প্রকাশিত: ১০:৫০ এএম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

গ্রিসের রাজধানী এথেন্সে ‘বাংলাদেশের সুর’ শিরোনামে তিন দিনব্যাপী চিত্রশিল্প প্রদর্শনী করা হয়েছে। এথেন্সের সাইচিকোর মিউনিসিপ্যাল আর্ট গ্যালারি লেফায় ২১ থেকে ২৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১৩ জন বাংলাদেশির চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ থেকে আগত এই চিত্র শিল্পীরাও। বাংলাদেশ ও গ্রিসের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার ৫০তম বার্ষিকী উদযাপনের অংশ হিসেবে গ্রিসে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস শিল্প প্রদর্শনীর আয়োজন করে।

gree1

প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ডেপুটি মেয়র ফিলোথিস সাইকিকো এলেনি জেপাউ এবং বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদের সার্বিক তত্তাবধানে বাংলাদেশের অংশ নেওয়া শিল্পীদের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত হয় প্রর্দশনী।

gree1

এতে অতিথি হিসেবে পরিদর্শন করেন, ভারতের রাষ্ট্রদূত অমৃত লুগুন, প্রদর্শনীর কিউরেটর এবং শিল্প ইতিহাসবিদ এলিসাভেট গেরোলিমাটোস, ইলাইনেপার সভাপতি অধ্যাপক দিমিত্রিস ভ্যাসিলিয়াদিস এবং বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকসহ আরো অনেকই।

gree1

এর আগে এথেন্সে বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূতের বাসভবনে বাংলাদেশের শিল্পীদের সংবর্ধনা দেওয়া হয়। পরে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত তার বাসভবনে অতিথিদের জন্য একটি সম্মানসূচক নৈশভোজের আয়োজন করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, এথেন্স স্কুল অব ফাইন আর্টসের রেক্টর প্রফেসর নিকোস ট্রানোস এবং স্কুলের অন্যান্য অধ্যাপক, ইউনেস্কো পাইরাস অ্যান্ড দ্বীপপুঞ্জের গ্রুপের সভাপতি আইওনিস। ম্যারোনাইটিসের সভাপতি অধ্যাপক দিমিত্রিওস ভ্যাসিলিয়াদিস এবং বাংলাদেশের অন্যান্য বন্ধুরা।

gree1

এছাড়া বাংলাদেশি শিল্পীদের গ্রিস সফর উপলক্ষে এথেন্স স্কুল অফ ফাইন আর্টসে একটি চিত্রকর্ম কর্মশালায় এবং ক্লাব ফর ইউনেস্কো পাইরাস আয়োজিত ১ম ইন্টারন্যাশনাল অ্যাকশন আর্ট-এ তাদের অংশগ্রহণে ধারাবাহিক সাংস্কৃতিক ও শৈল্পিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

gree1

বাংলাদেশের শিল্প ও চিত্রকলার একটি সমৃদ্ধ ঐতিহ্য রয়েছে এবং বর্তমান প্রদর্শনী গ্রিক শিল্পপ্রেমীদের তা জানার সুযোগ দেবে বলে আশাবাদী বাংলাদেশ দূতাবাস।

এমআরএম/এমএস

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]