চীনে ভোকেশনাল এডুকেশন অ্যালায়েন্সের উদ্বোধন

প্রবাস ডেস্ক
প্রবাস ডেস্ক প্রবাস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:১৩ এএম, ০২ ডিসেম্বর ২০২২

আন্তর্জাতিক সিস্টার সিটিগুলোর সঙ্গে গুয়াংশি স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের বৃত্তিমূলক শিক্ষাকে প্রসার ঘটাতে প্রতিষ্ঠিত ‘ইন্টারন্যাশনাল সিস্টার সিটিজ ভোকেশনাল এডুকেশন অ্যালায়েন্স’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সফলভাবে শেষ হয়েছে।

৩০শে নভেম্বর চীনের গুয়াংশি স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের রাজধানী নাননিংয়ে হাইব্রিড প্ল্যাটফর্মে অনুষ্ঠিত হয়।

ফরেন অ্যাফেয়ার্স অফিস অফ দ্য গুয়াংশি অটোনমাস রিজিওন, দ্যা ডিপার্টমেন্ট অব এডুকেশন অব দ্য গুয়াংশি অটোনমাস রিজিওন, দ্য গুয়াংশি অটোনমাস রিজিওন পিপলস অ্যাসোসিয়েশন ফর ফ্রেন্ডশিপ উইথ ফরেন কান্ট্রিসসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের যৌথ উদ্যোগ ‘ইন্টারন্যাশনাল সিস্টার সিটিজ ভোকেশনাল এডুকেশন অ্যালায়েন্স’ গঠিত হয়েছে।

jagonews24

গুয়াংশি স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের বৈদেশিক বিষয়ক কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক এবং দ্য গুয়াংশি অটোনমাস রিজিওন পিপলস অ্যাসোসিয়েশন ফর ফ্রেন্ডশিপ উইথ ফরেন কান্ট্রিস ভাইস প্রেসিডেন্ট ঝুও থং, গুয়াংশি স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের শিক্ষা বিভাগের আন্তর্জাতিক সহযোগিতা ও বাণিজ্যের পরিচালক লুও ইয়াওগুয়াং, নাননিং কলেজ অব ভোকেশনাল টেকনোলজি এর প্রেসিডেন্ট ঝুও ওয়াং, গুয়াংশি পলিটেকনিক অব কনস্ট্রাকশনের প্রেসিডেন্ট ওখুন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এবং বক্তব্য দেন।

বিশ্বের ১০টি দেশের ১৫টি সিস্টার সিটি থেকে মোট ৩৭টি কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় এবং চীনের গুয়াংশি স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের ৯টি শহরের ২২টি ভোকেশনাল কলেজ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে একটি কৌশলগত চুক্তি করেছে।

jagonews24

কৌশলগত চুক্তির ক্ষেত্রগুলো হলো, তথ্যপ্রযুক্তি, শিল্প দক্ষতা, রেলওয়ে নির্মাণ, সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, কৃষি ও বনবিদ্যা, আর্থিক অর্থনীতি, ব্যবসা এবং হোটেল ব্যবস্থাপনা, একাডেমিক সুবিধার পাশাপাশি অন্যান্য শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ রয়েছে।

গুয়াংশি স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল ১৯৭৯ সালে প্রথম সিস্টার সিটি প্রতিষ্ঠা করে। তারপর থেকে, গুয়াংশি স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের সঙ্গে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সাথে সিস্টার সিটির সংখ্যা ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং বিনিময়ের কার্যকারিতা উল্লেখযোগ্য বাড়ছে। গুয়াংশি স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল পাঁচটি মহাদেশের ৩৮টি দেশের সাথে ১২৪টি আন্তর্জাতিক সিস্টার সিটি স্থাপন করেছে।

এমআরএম/জিকেএস

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]