মানুষ বৃদ্ধ হলে আশা-আকাঙ্ক্ষা কি থেমে যায়?

ইসলাম ডেস্ক
ইসলাম ডেস্ক ইসলাম ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:২৬ পিএম, ৩০ নভেম্বর ২০২১

মানুষের জন্ম যেমন সত্য বাস্তব জীবনে তার আশা-আকাঙ্ক্ষা, কামনা-বাসনা এবং মৃত্যুও সত্য। এমন কিছু আশা-আকাঙ্ক্ষা কিংবা কামনা আছে; মানুষ বৃদ্ধ হয়ে গেলেও সে আকাঙ্ক্ষার চাহিদা কমে না। বয়স যত বেশিই হোক না কেন কিছু চাহিদা ও আকাঙ্ক্ষা মানুষের কখনো থেমে থাকে না। কী সেই সব আকাঙক্ষা? মানুষ বৃদ্ধ হলেও কি এসব আশা-আকাঙ্ক্ষা থেমে যায়? এ সম্পর্কে হাদিসে পাকে কী বলেছেন নবিজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম?

হ্যা, মানুষ যুবক কিংবা বৃদ্ধ; নারী-কিংবা পুরুষ; সবার মাঝে সম্পদের লোভ; বেঁচে থাকার আকুতি কখনো কমে না। এ সম্পর্কে হাদিসের একাধিক বর্ণনায় তা ওঠে এসেছে-
১. হজরত আনাস রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেছেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, আদম সন্তান বৃদ্ধ হয়ে গেলেও তার দুইটি স্বভাব যুবকই থেকে যায়-
> সম্পদের লোভ ও
> বেঁচে থাকার লালসা। (বুখারি, মুসলিম, ইবনে মাজাহ, তিরমিজি, মুসনাদে আহমাদ)

২. হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেছেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, দুইটি জিনিসের ভালোবাসায় বৃদ্ধের মন যুবকই থেকে যায়-
১. বেঁচে থাকার লালসা ও
২. সম্পদের প্রাচুর্য। (ইবনে মাজাহ, বুখারি, তিরমিজি, মুসনাদে আহমাদ)

৩. হজরত আনাস ইবনে মালেক রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেছেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, এই হলো আদম সন্তান এবং এই হলো তার মৃত্যু, তার ঘাড়ের কাছে। তিনি তাঁর হাত তাঁর সামনের দিকে প্রসারিত করে বললেন, এই পর্যন্ত (হায়াতের চেয়েও বেশি) তার আকাঙ্ক্ষা বৃদ্ধি পেয়ে থাকে।’ (ইবনে মাজাহ, বুখারি, তিরমিজি, মুসনাদে আহমাদ, মিশকাত)

৪. হজরত আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেছেন নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম একটি বর্গাকৃতির চতুর্ভুজ আঁকলেন, এর মধ্যভাগে একটি সরল রেখা টানলেন, অতঃপর চতুর্ভুজের মধ্যবর্তী এ রেখার দুই দিকে অনেকগুলো ক্ষুদ্র রেখা টানলেন, এরপর চতুর্ভুজের বহির্ভাগে একটি সরল রেখা টানলেন যা বর্গক্ষেত্রকে ছেদ করে অন্য প্রান্ত ভেদ করেছে। এরপর তিনি বললেন, ‘তোমরা কি জানো, এটা কী?
তারা বলেন, আল্লাহ ও তাঁর রাসুল অধিক জ্ঞাত।

তিনি বললেন, ‘এই মধ্যবর্তী রেখাটি হলো মানুষ। আর সরল রেখার দুই দিকে যে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র রেখা আছে, এগুলো হলো বিপদাপদ, যা তাকে অহরহ দংশন করে। সে একটি বিপদ থেকে মুক্তি পেলে আরেকটি বিপদ তার উপর পতিত হয়। বর্গক্ষেত্রটি হলো তার জীবনকালের সীমা, যা তাকে বেষ্টন করে রেখেছে। আর (বর্গক্ষেত্র ভেদ করে) বাইরে আসা রেখাটি হলো তার কামনা-বাসনা।’ (ইবনে মাজাহ, বুখারি, তিরমিজি, মুসনাদে আহমাদ, দারেমি)

৫. হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেছেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, আদম সন্তান দুই উপত্যকা ভর্তি সম্পদের অধিকারী হলেও সে এর সঙ্গে তৃতীয়টি পাওয়ার আকাঙ্ক্ষা করবে। মাটি ছাড়া অন্য কিছু তার দেহ ভর্তি করতে পারে না। কোন ব্যক্তি তওবা করলে আল্লাহ তার তওবা কবুল করেন।’ (ইবনে মাজাহ)

সুতরাং মানুষের উচিত, এসব আশা-আকাঙ্ক্ষা থেকে বিরত থাকা। জীবনকে উপলব্দি করা। পৃথিবীতে আসার উদ্দেশ্য নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করা। আল্লাহকে ভয় করা। লোভ-লালসামুক্ত জীবন গড়া। আর তাতেই রয়েছে প্রকৃত মুক্তি ও সফলতা।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে আশা-আকাঙ্ক্ষা ও মৃত্যুর ফেতনা থেকে বিরত থাকার তাওফিক দান করুন। সঠিক ও সফল জীবন এবং পরকালের কাঙ্ক্ষিত সাফল্য পাওয়ার তাওফিক দান করুন। আমিন।

এমএমএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]