আল্লাহর পথে অর্থ ব্যয়ের নির্দেশ


প্রকাশিত: ০৫:৩৬ এএম, ২৮ নভেম্বর ২০১৬

আল্লাহ তাআলা কুরআনে তাঁর পথে জীবন উৎসর্গের বিধান প্রণয়ন করেছেন। তাই বলে শুধু জীবন দেয়াই যেমন ইসলামের উদ্দেশ্য নয় বরং সে জীবন উৎসর্গ হবে আল্লাহর পথে; আল্লাহর দ্বীন ও বিধানের প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে।

ঠিক কোনো কাজে অনর্থক অর্থ ব্যয় করার কোনো মূল্য ও গুরুত্ব ইসলামে নেই। বরং যেসব কাজে সম্পদ ব্যয়ের গুরুত্ব ও মর্যাদা রয়েছে তা হলো- সত্য ও ন্যায়ের পথে অর্থ ব্যয়, অসত্য ও অন্যায় পথে নয়; সম্পদ ব্যয় হবে আল্লাহ তাআলার সন্তুষ্টির উদ্দেশ্যে, প্রবৃত্তির চাহিদা পূরণে নয়। আল্লাহ তাআলা কুরআনে তাঁর পথে দানের বিধান নাজিল করে বলেন-

Quran

আয়াতের অনুবাদ

Quran

আয়াত পরিচিতি ও নাজিলের কারণ
সুরা বাকারার ১৯৫নং আয়াতে আল্লাহ তাআলা মুসলমানদের তাঁর পথে অর্থ ব্যয়ের নির্দেশ দিয়েছেন। তাফসিরে মাজেদিতে এ আয়াত নাজিলের কারণ বর্ণনা করা হয়েছে, ‘মূলত দ্বীন ও ইসলামের বিজয়ে যুদ্ধ পরিচালনার ব্যয় বহনের গুরুত্ব তুলে ধরে আল্লাহ তাআলা এ আয়াত নাজিল করেন। তবুও ফি সাবিলিল্লাহ আল্লাহর পথে দান; যে কোনো দ্বীনি কাজে সম্পদ ব্যয় করাকে অন্তর্ভুক্ত করবে।’

বর্তমানে এ আয়াতের হুকুম ‘আল্লাহর পথে অর্থ ব্যয়’ করার অর্থ হলো- আল্লাহর দ্বীনকে প্রতিষ্ঠা করার জন্য যে প্রচেষ্টা ও সংগ্রাম চালানো হয়, তাতে অর্থ ব্যয় করা। যদি কোনো ব্যক্তি সম্পদের মালিক হওয়া সত্ত্বেও আল্লাহর দ্বীনকে প্রতিষ্ঠা করার জন্য নিজের অর্থ-সম্পদ ব্যয় না করে এবং ইসলামের বিপরীতে নিজের ব্যক্তিস্বার্থকে প্রিয় মনে করে, ওই ব্যক্তির জন্য দুনিয়া ও পরকালে রয়েছে ধ্বংস।

আল্লাহর পথে সম্পদ ব্যয় না করার অর্থই হলো নিজেই নিজেকে ধ্বংস করা। এজন্য ইসলাম কৃপণতা থেকে বিরত থাকতে বলেছেন। যারা ইসলামের প্রয়োজনে সম্পদ থাকা সত্ত্বেও দান করা থেকে বিরত থাকে, তাদের জন্য নিশ্চিত ধ্বংস।

অতঃপর আয়াতে সৎকাজ করার প্রতি নির্দেশ দেয়া হয়েছে। অর্থাৎ আল্লাহ তাআলার পক্ষ থেকে আরোপিত সব ফরজ কাজগুলো যথাযথ পালন করার হুকুম করা হয়েছে। যারা আল্লাহ তাআলা বিধি-নিষেধগুলো যথাযথভাবে পালন করবে; আল্লাহ তাআলা কুরআনে তাদের নিঃসন্দেহে ভালোবাসেন বলে উল্লেখ করেছেন। আল্লাহর বিধান পালনকারীদের জন্য এ এক অনন্য পাওয়া।

পড়ুন- সুরা বাকারার ১৯৪নং আয়াত

পরিশেষে...
আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে ইসলামের পথে সম্পদ ব্যয় করে তাঁর বিধান মান্য করার তাওফিক দান করুন। সম্পদের অধিকারী ব্যক্তিকে কৃপণতা থেকে হিফাজত করুন। সবাইকে নেক কাজ করার তাওফিক দান করুন। সর্বোপরি সবাইকে নেক কাজের মাধ্যমে আল্লাহ তাআলার ভালোবাসা অর্জন করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

এমএমএস/এনএইচ/এমএস