আজকের তারাবিতে দাওয়াতে দ্বীনের বিষয়াবলীসহ যা পড়া হবে


প্রকাশিত: ০৪:১৬ এএম, ০৯ জুন ২০১৭

আজ রমজানের ১৪তম তারাবি অনুষ্ঠিত হবে। আজকের তারাবিতে মাক্কী সুরা ‘সুরা আম্বিয়া’ ও মাদানী সুরা ‘সুরা হজ’ পড়া হবে। সে সঙ্গে ১৭তম পারা তিলাওয়াত শেষ হবে। আজকের তারাবিতে আলোচ্য বিষয় ও সংক্ষিপ্ত সূচি তুলে ধরা হলো-

সুরা আম্বিয়া : আয়াত ১১২
সুরা আম্বিয়ার আলোচনা মানুষের আক্বিদা বিশ্বাস নিয়ে। এ সুরাটিও মক্কায় নাজিল হয়। সুরাটি ইসলামের প্রথম যুগের সুরা। আল্লাহ সতের জন আম্বিয়ার কেরামের উল্লেখ করেছেন এ সুরায়। এতে তাদের দাওয়াতের বিষয়াবলী স্থান পেয়েছে।
বিশেষ করে বিশ্বনবির জন্য সান্ত্বনা স্বরূপ বিষয় হলো যে, তৎকালীন অবিশ্বাসী সম্প্রদায় এ সতের জন নবির সঙ্গে কি রূপ আচরণ করেছিলেন; কিভাবে অত্যাচার করেছিলেন তার বিস্তারিত বিবরণ ওঠে এসেছে।

Vision

আল্লাহ তাআলা অত্যাচার নির্যাতন শেষে কিভাবে সব আম্বিয়ায়েকেরামকে তাদের দাওয়াতি মিশনে সফলতা দান করেছেন তাও আলোচনা করা হয়েছে এ সুরায়।

এ সুরা যেভাবে তাওহিদ ও রিসালাতের কথা আলোচনা করা হয়েছে তেমনি কিয়ামাতের সত্যতা ও বাস্তবতার কথাও ঘোষণা করা হয়েছে। এ সুরার সংক্ষিপ্ত আলোচ্যসূচি তুলে ধরা হলো-

>> কুরআন আরবদের সম্মান ও গৌরবের বস্তু;

>> মানুষের সংসারে কষ্ট এবং সুখ হলো পরীক্ষাস্বরূপ;

>> কিয়ামাতে আমলের ওজন ও দাড়িপাল্লা;

>> হজরত ইবরাহিম আলাইহিস সালামসহ নবিদের আলোচনা;

>> বিচারের রায় প্রদানের পর পুনরায় রায় পরিবর্তন ও ভঙ্গের বিধান;

>> কারো জন্তু বা জানোয়ার দ্বারা অন্যের জান বা মালের ক্ষতির বিধান;

>> সৃষ্টিকূলের তাসবিহ-এর ধরন;

>> সুরা শেষ দিকে হজরত সুলায়মান আলাইহিস সালামের জন্য জিন ও শয়তানকে বশীভূতকরণ;

>> হজরত আইয়ুব আলাইহিস সালামের কাহিনী;

>> নবি হোক আর অলি হোক বিস্ময়কর তথ্য আলোচনা করা হয়েছে ‘যুল কিফল’ সম্পর্কে।

সুরা হজ : আয়াত ৭৮
সুরা হজ মাক্কী না মাদানি এ বিষয়ে অনেক মতভেদ রয়েছে; তবে অধিকাংশ তাফসিরকারক বলেন, এ সুরাটি মিশ্র। এতে মক্কা ও মদিনায় অবতীর্ণ উভয় প্রকারের আয়াতই সন্নিবেশিত হয়েছে।

এ সুরা বৈচিত্র্য হলো এই যে, এর কিছু আয়াত রাতে, কিছু আয়াত দিনে, কিছু আয়াত সফরে, কিছু আয়াত গৃহে অবস্থানকালে, কিছু আয়াত মক্কা, কিছু আয়াত মদিনায়, কিছু আয়াত যুদ্ধাবস্থায় এবং কিছু আয়াত শান্তি বিরাজমান অবস্থায় অবতীর্ণ হয়েছে।

নাসেখ ও মানুসুখের আয়াতও নাজিল হয়েছে এ সুরায়। এ সুরা বিষয়গুলোরে কিছু তুলে ধরা হলো-

>> কিয়ামাতের ভূকম্পন সম্পর্কিত তথ্য;

>> মায়ের গর্ভে মানব সৃষ্টির স্তর ও বিভিন্ন অবস্থার আলোচনা;

>> জান্নাতিদের কংকন পরিধান করানোর রহস্য এবং রেশমি পোশাক পুরুষের জন্য নিষিদ্ধ হওয়ার কারণ;

>> বাইতুল্লায় সকল মুসলমানের সমান অধিকারের তাৎপর্য;

>> বাইতুল্লাহ নির্মাণ সম্পর্কিত আলোচনা;

>> গুরুত্বপূর্ণ ইবাদাত হজের কর্যক্রমে সুন্দরভাবে সম্পাদনের বিষয়াবলীর আলোচনা;

>> কাফেরদের বিরুদ্ধে জিহাদের প্রথম আদেশ;

>> শিক্ষা ও দূরদৃষ্টি অর্জনে ভ্রমণের প্রসঙ্গ;

>> রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের অনুসরণ ও অনুকরণেই নাজাতের একমাত্র ব্যবস্থা;

>> পরকালীন জীবনের সময়ের ব্যাপকতা।

সুতরাং আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে কুরআনের এ গুরুত্বপূর্ণ সুরাগুলো বুঝে পড়ার এবং তাঁর ওপর আমল করার পাশাপাশি নিজেদের আকিদা-বিশ্বাসকে শিরকমুক্ত রাখার তাওফিক দান করুন। আমিন।

এমএমএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :