পবিত্র আশুরা পালিত হবে শুক্রবার

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:২৪ পিএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

১৪৪০ হিজরির মহররম মাসের ১০ তারিখ মোতাবেক ২১ সেপ্টেম্বর শুক্রবার দেশব্যাপী পবিত্র আশুরা পালিত হবে। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মহররমের প্রথম দিন থেকেই শুরু হয়েছে আলোচনা সভা। আরব দেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আজ পবিত্র আশুরা পালিত হলেও বাংলাদেশসহ কিছু দেশে আগামীকাল মহররম পালিত হবে।

প্রথমত মহররম মাসটি একটি সম্মানিত মাস। দ্বিতীয়ত এ মাসে আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহর জন্য বিশেষ কিছু কাজকে হারাম ঘোষণা করেছেন। কুরআনুল কারিমের যে ৪টি মাসকে হারাম মাস হিসেবে ঘোষণা করেছেন। এ মাসে যুদ্ধ-মারামারি নিষেধ করেছেন এ মাসে।

সৃষ্টির সূচনালগ্ন থেকে মহররম মাসটি ঐতিহাসিক কারণে বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ। আর উম্মতে মুসলিমার কাছে দু’টি কারণে এ মাসটি মর্যাদার। অনেক বড় বড় ঐতিহাসিক ঘটনা বিজড়িত।

প্রথমটি হলো
প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যখন মদিনায় হিজরত করলেন, তখন দেখলেন সেখানকার ইয়াহুদিরা মহররমের ১০ তারিখ রোজা পালন করছেন। প্রিয়নবি জানতে চাইলেন তারা এ দিনে কেন রোজা পালন করে। এ প্রসঙ্গে তারা জানাল যে, মহররমের ১০ তারিখ আল্লাহ তাআলা জালেম শাসক ফেরাউনের কবল থেকে হজরত মুসা আলাইহিস সালামকে হেফাজত করেছিলেন। আর ফেরউনসহ তার দলবলকে নদীতে ডুবিয়ে মেরেছিলেন।

দ্বিতীয়টি হলো
বিশেষ করে আজ থেকে ১ হাজার ৩৭৯ বছর পূর্বে ৬১ হিজরির মহররম মাসের ১০ তারিখ প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের প্রাণপ্রিয় দৌহিত্র হজরত ইমাম হুসাইন রাদিয়াল্লাহু আনহু দ্বীন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে কুফা যাওয়ার পথে কারবালার ঐতিহাসিক প্রান্তরে শাহাদাত বরণ করেন। এ জন্য মুসলিম উম্মাহর নিকট এ দিনটি অত্যন্ত শোকের মাস হিসেবে পরিগণিত।

হজরত ইমাম হুসাইন রাদিয়াল্লাহু আনহু তার পরিবার এবং সঙ্গীগণসহ দ্বীন প্রতিষ্ঠার মানসে কুফায় গমনের পথে কারবালা প্রান্তরে নির্মমভাবে শাহাবাদ বরণ করেন। এ ঘটনার স্মরণে মুসলিম উম্মাহ এ দিনটি যথাযথ মর্যাদায় ইবাদাত-বন্দেগি ও রোজা পালনের মাধ্যমে অতিবাহিত করেন।

ইসলামের সুমহান আদর্শকে সমুন্নত রাখতে এবং আল্লাহর জমিনে তাঁর দ্বীনকে প্রতিষ্ঠা করতে এ দিনের তাৎপর্য, গুরুত্ব এবং মর্যাদা উপলব্দি করে উত্তম প্রতিষ্ঠায় তা বাস্তবায়ন করা প্রত্যেক মুসলমানের ঈমানের দাবি।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে আশুরার রোজা পালনসহ সকল ত্যাগ ও ঐতিহাসিক ঘটনা থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে সমাজে তা বাস্তবায়ন এবং ইবাদাত-বন্দেগি করে তাঁর নৈকট্য অর্জন ও ক্ষমা লাভের তাওফিক দান করুন। আমিন।

এমএমএস/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :