সকাল-সন্ধ্যা জমজমাট বাদামতলী-ওয়াইজঘাট

মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল
মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৩:৪৪ পিএম, ০৪ এপ্রিল ২০১৮ | আপডেট: ০৪:০৬ পিএম, ০৪ এপ্রিল ২০১৮

‘আরে ভাই, আজকের বাজার তো এক্কেবারে সস্তা। দুই সপ্তাহ আগেও একই মাল প্রতি শ’ গড়ে ২০ হাজার টাকায় বেচা হইছে। আইজ তো মাত্র ১২/১৩ হাজার টাকায় মাল ছাড়তাছি। তারপরও কন দাম চড়া।’

badantoli

‘আরে মহাজন, রাগ করেন কেন? অহন তো তরমুজের ভুরি-ভুরি চালান নামতাছে। চাইলে একটু দাম কম নিতে পারেন, তাই কইছিলাম আর কি?’

badantoli

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় রাজধানীর পুরান ঢাকার সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালের অদূরে বাদামতলীতে তরমুজের এক আড়তদার ও পাইকারি ব্যবসায়ীর মধ্যে এ কথোপকথন শোনা যায়। আড়তের ভেতরে উঁকি দিতেই দেখা যায় থরে থরে সাজানো তরমুজ। সামনে বুড়িগঙ্গার ঘাটে ভেড়ানো নৌকা থেকে, অন্যদিকে রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাক থেকে দিনমজুররা আড়তে মাল এনে মজুদ করছে। ভেতরে চলছে দরদাম। তরমুজ বেচা-কেনার এ দৃশ্য এখন নিত্যদিনের। বর্তমানে প্রতিদিন কাকডাকা ভোর থেকে বাদামতলী ও ওয়াইজঘাটে তরমুজের জমজমাট হাট বসছে।

badantoli

সরেজমিন পরিদর্শনকালে উৎপাদক, আড়তদার ও পাইকারি ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলাপকালে জানা গেছে, পটুয়াখালী, বরগুনা ও ভোলা থেকে ট্রাক, স্টিমার ও লঞ্চযোগে বাদামতলী ও ওয়াইজঘাটে ছোট, মাঝারি ও বড়সহ বিভিন্ন আকারের তরমুজ বিক্রির জন্য আনা হচ্ছে। রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে পাইকারি ও খুচরা ব্যবসায়ীরা তরমুজ কিনতে ছুটে আসছেন। ফলে ক্রেতা-বিক্রেতার উপস্থিতিতে সকাল থেকে সন্ধ্যা অবধি জমজমাট থাকছে তরমুজের আড়ত।

badantoli

উৎপাদকরা জানান, গত বছরের চেয়ে এবার ফলন অনেক বেশি। গত বছরের চেয়ে এবার তারা মালের ভালো দাম পাচ্ছেন। আড়তদাররা জানান, প্রতিদিন ভোরে লঞ্চভর্তি করে তরমুজ নামছে। সেগুলো শ্রমিকরা নামিয়ে নৌকায় মজুদ করছেন। পাইকারি ব্যবসায়ীরা কেউ সরাসরি নৌকা থেকে কিংবা আড়তে তোলার পর কিনে নিচ্ছেন।

badantoli

আড়ত ঘুরে দেখা গেছে, প্রতি একশ’ পিস তরমুজের মূল্য সর্বনিম্ন আট হাজার থেকে নয় হাজার টাকা, সর্বোচ্চ ১৮ হাজার থেকে ২০ হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে। খুচরা ব্যবসায়ীরা এসব তরমুজ দ্বিগুণ বা তার চেয়ে বেশি মূল্যে বিক্রি করছেন।

badantoli

রাজধানীর আজিমপুর এলাকার তরমুজের খুচরা বিক্রেতা আবদুল আজিজ বলেন, ১শ’ তরমুজ কিনে আনলে নানা কারণে কমপক্ষে ৮/১০টা নষ্ট হয়। ফলে লোকসান কমাতে একটু বেশি দামে বিক্রি করতে হয়।

badantoli

তবে বাজারে তরমুজের প্রচুর সরবরাহ থাকায় উৎপাদক, আড়তদার, পাইকারি ও খুচরা বিক্রেতারা সবাই খুশি। দাম একটু বেশি হলেও এ নিয়ে কারও তেমন অভিযোগ নেই। রাজধানীর নিউ মার্কেটের একটি স্বর্ণালঙ্কার দোকানের কর্মকর্তা আশিষ কুমার বলেন, এ মৌসুমে দু’দিন ৩শ’ টাকা করে দুটি তরমুজ কিনেছি। খেতে খুবই সুস্বাদু, মিষ্টিও বেশ।

এমইউ/ওআর/জেআইএম