মোহাম্মদ স্যামি এত কৃপণ!

ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:৩০ এএম, ২৫ নভেম্বর ২০১৭

জয়ের জন্য লক্ষ্য ১৮৬ রান। ২০ ওভারের ম্যাচে স্বাভাবিকভাবেই হাতখুলে খেলার চেষ্টা করবেন ব্যাটসম্যানরা। সেই হাতখুলে খেলার সামনে বোলারদের একের পর এক মাঠের বাইরে আছড়ে পড়তে হবে- এটাও জানা কথা। কিন্তু একজন বোলার যদি ৪ ওভার (২৪ বল) বোলিং করে দেন মাত্র ৯ রান এবং উইকেট নেন ৪টি। তাহলে ব্যাটিং করা দলের কী অবস্থা হতে পারে- একবার আন্দাজ করে দেখুন!

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বিপিএলে আজ দিনের ম্যাচে এমনই কৃপণতা দেখিয়েছেন রাজশাহী কিংসের পাকিস্তানি পেসার মোহাম্মদ সামি। টস জিতে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের সামনে ১৮৬ রানের লক্ষ্য ছুঁড়ে দেয়ার পর প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানদের ওপর শুরুতেই আক্রমণ শানানোর দায়িত্ব সামির হাতে তুলে দেন রাজশাহীর অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি।

অধিনায়কের আস্থার পুরোপুরি প্রতিদান দেন সামি। নিয়মানুসারে ৪ ওভারের বেশি বোলিং করতে পারার কথা নয় একজন বোলারের। নির্ধারিত ৪ ওভারের মধ্যে ১৭টি বলই ডট দিয়েছেন সামি। তার কাছ থেকে ছক্কা তো দুরে থাক, একটিও বাউন্ডারি মারতে পারেনি কুমিল্লার ব্যাটসম্যানরা।

কোনো মেডেন অবশ্য পাননি। কিন্তু মোটের ওপর রান দিয়েছেন সাকুল্যে ৯টি। একই সঙ্গে উইকেট নিয়েছেন ৪টি। কুমিল্লার সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ব্যাটসম্যান সর্বোচ্চ ৬৩ রান করা তামিম ইকবালকে ফেরান সামি। এছাড়া ফাখর জামান, অলক কাপালি এবং মোহাম্মদ সাইফুদ্দিনকে সাজঘরের পথ দেখিয়েছেন তিনি।

মূলতঃ সামির বোলিংয়ের সামনেই রাজশাহীর কাছে ৩০ রানে হেরেছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। এবারের বিপিএলে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই হেরেছিল কুমিল্লা। এরপর টানা জয়ের ওপর ছিল তারা। টানা ৫ জয়ের পর, ৬ষ্ঠ ম্যাচে এসেই পরাজয়ের স্বাদ পেলো তারা, শুধু সামির এমন বিধ্বংসী বোলিংয়ের সামনে।

তবে এবারের বিপিএলে কৃপণ বোলিংয়ে কিন্তু সামি ৩ নম্বরে। তার ইকনোমি রেট ২.২৫। ৪ ওভার বল করে মাত্র ৭ রান দিয়ে সবচেয়ে কৃপণ বোলারের তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন কুমিল্লারই আফগানি রিক্রুট রশিদ খান। ইকনোমি রেট ১.৭৫। যদিও উইকেট নিয়েছেন ১টি। এরপর খুলনা টাইটান্সের আফিফ হোসেন ধ্রুব রয়েছেন দুই নম্বরে। ২ ওভার বল করে ৪ রান দিয়ে তিনি নিয়েছেন ২ উইকেট। ইকনোমি রেট ২.০০ করে। এরপরই স্যামির অবস্থান।

এর আগে আজই এক ওভারে বিপিএলের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি রান দেয়ার বাজে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন কুমিল্লার মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। এক ওভারেই তিনি দিয়েছিলেন ৩২ রান। ৪ ওভার বল করে মোট ৫০ রান দেন সাইফুদ্দিন। তার বাজে বোলিংয়ের কারণেও হেরেছে বলতে গেলে কুমিল্লা।

আইএইচএস/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :