ডি ভিলিয়ার্স-এলগারে এগুচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকা

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৪৮ পিএম, ১৫ জানুয়ারি ২০১৮

একা এক বিরাট কোহলির কারণে, না হয় সেঞ্চুরিয়নের সুপার স্পোর্টস পার্ক টেস্টের ফল এখনই বলে দেয়া যেতো। প্রথম ইনিংসে প্রোটিয়াদের ৩৩৫ রানে গুটিয়ে দেয়ার পর ব্যাট করতে নেমে দারুণ বিপদে পড়েছিল ভারতীয় দলও। প্রোটিয়া পেসারদের দাপুটে শুরু থেকেই টানা উইকেট পড়তে থাকে ভারতের। লোহেশ রাহুল, চেতেশ্বর পুজারা, রোহিত শর্মা কিংবা মুরালি বিজয়রা খাবি খেতে শুরু করে প্রোটিয়া পেসারদের সামনে।

কিন্তু একজন ছিলেন ব্যতিক্রম। তিনি অধিনায়ক বিরাট কোহলি। টেস্টের দ্বিতীয় দিনই তিনি ছিলেন ৮৫ রানে অপরাজিত। সেঞ্চুরির দ্বারপ্রান্তে ছিলেন তিনি। কেপ টাউনের নিউল্যান্ডসে দুই ইনিংস মিলিয়ে মাত্র ৩৩ রান করার কারণে কোহলির সঙ্গে তার নববধূ আনুশকা শর্মাকে সমালোচনার শিকার হতে হয়েছিল।

কিন্তু দ্বিতীয় টেস্টে সেঞ্চুরি করে সব সমালোচনার জবাব দেন হোকলি। টেস্ট ক্যারিয়ারে করলেন ২১তম সেঞ্চুরি। শুধু সেঞ্চুরি করাই নয়, নিজের ইনিংসটাকে ১৫৩ রানে নিয়ে গেলেন তিনি। তার একার বিশাল এই ইনিংসের ওপর ভর করে ভারতের রান গিয়ে থামে ৩০৭-এ।

২৮ রানে এগিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামে প্রোটিয়ারা; কিন্তু শুরুতেই জসপ্রিত বুমরাহর তোপের মুখে পড়ে দ্রুত দুই উইকেট হারিয়ে বসে স্বাগতিকরা। দলীয় ৩ রানের মধ্যেই হারিয়ে বসে এইডেন মাকরাম এবং হাশিম আমলাকে। এরপর লড়াই করতে শুরু করেন এবি ডি ভিলিয়ার্স আর ডিন এলগার। দু’জন মিলে গড়েন ৮৭ রানের জুটি। এরই মধ্যে হাফ সেঞ্চুরি পূরণ করে ফেলেন ডি ভিলিয়ার্স।

তৃতীয় দিন শেষে তিনি অপরাজিত ৫০ রানে। এলগার অপরাজিত ৩৬ রানে। দক্ষিণ আফ্রিকার রান ২ উইকেট হারিয়ে ৯০ রান। স্বাগতিকদের লিড ১১৮ রানের। বৃষ্টির কারণে শেষ দিকে খেলা বন্ধ না হলে আরও কিছু রান হয়তো যোগ করতে পারতেন ডি ভিলিয়ার্সরা।

আইএইচএস/বিএ

আপনার মতামত লিখুন :