সাকিবদের কাছে ‘নাকল বল’ শিখতে চায় কলকাতা

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:০৬ পিএম, ১৫ এপ্রিল ২০১৮ | আপডেট: ০৬:০৮ পিএম, ১৫ এপ্রিল ২০১৮

শনিবার ঘরের মাঠে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে পাঁচ উইকেটে পরাজিত হয় কলকাতা নাইট রাইডার্স (কেকেআর)। সাবেক তিন খেলোয়াড় সাকিব আল হাসান, মনিশ পান্ডে এবং ইউসুফ পাঠান মিলেই হারিয়ে দিলেন তাদের পুরনো দলকে। তবে ম্যাচ শেষে কেকেআরের বর্তমান অধিনায়ক ভুগছেন অন্য সমস্যায়।

অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসে জানান, হায়দরাবাদের পেসারদের ‘নাকল বল’-এর কাছেই কুপোকাত হয়েছেন তারা। ম্যাচের আট উইকেটের মধ্যে দুইটি উইকেট নেন বাঁ-হাতি স্পিনার সাকিব আল হাসান। বাকি ৬ উইকেটের সবক’টি শিকার করেন তিন পেসার ভুবনেশ্বর কুমার, বিলি স্ট্যানলেক এবং সিদ্ধার্থ কাউল।

বিশ্ব ক্রিকেটে বর্তমানে ‘নাকল বল’ ডেলিভারি নিয়ে চলছে তুমুল আলোচনা। কি এই নাকল বল? নতুন আমদানি করা এই বোলিং নিয়েও জানার তুমুল আগ্রহ সাধারণ ক্রিকেটপ্রেমীদের। সাধারণত বোলাররা পুরো আঙুল ব্যবহার করে বল ডেলিভারি করে থাকেন। তবে নাকল বলের ক্ষেত্রে বল গ্রিপ করার সময় আঙুলগুলো অর্ধেক বাঁকিয়ে ভেতরের দিকে ঢুকিয়ে নেন তারা। ফলে একই রকম ডেলিভারিতেই বলের গতির তারতম্য দেখা দেয় এবং বল বাতাসে ভেসে সুইং করে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি পরিমাণে। ফলে বিভ্রান্তিতে পড়ে যান ব্যাটসম্যানরা এবং উইকেট বিলিয়ে দেন অকাতরে।

কলকাতার অধিনায়ক কার্তিকও শনিবার ভুগেছেন এই নাকল বল খেলতে না পেরে। বলগুলো বুঝতেই পারেনি তার দলের ব্যাটসম্যানরা। ফলে তারা ধরা পড়েন নাকল বলের চতুরতায়। অথচ বোলিংয়ে নেমে তাদের বোলাররা পারেননি এই জাদু দেখাতে। ফলে পিছিয়ে যেতে হয় ম্যাচে, পেতে হয় পরাজয়ের স্বাদ।

এ কারণে সাকিবদের কাছ থেকে নাকল বল শেখা প্রয়োজন বলে মনে করেন কার্তিক। হায়দরাবাদ পেসারদের ভূয়সি প্রশংসা করে কার্তিক বলেন, ‘তাদের (হায়দরাবাদ) বোলাররা নিখুঁতভাবে নাকল বল করতে পারে। আমাদের সাথে খুবই কার্যকরিতার সঙ্গে এটি করেছে তারা। হায়দরাবাদের কাছ থেকে এই জিনিসটা শিখতে পারি আমরা।’

শনিবারের ম্যাচে হায়দরাবাদের কাছে পরাজয়ের ফলে পয়েন্ট টেবিলের চারে নেমে গেছে কলকাতা। তিন ম্যাচে তাদের জয় মাত্র একটি। অন্যদিকে তিন ম্যাচের সবক’টিতে জিতে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে অবস্থান করছে সাকিব আল হাসানের সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।

এসএএস/আইএইচএস/পিআর