অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক হতে রাজি অ্যারোন ফিঞ্চ

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:১৪ পিএম, ১৫ এপ্রিল ২০১৮
অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক হতে রাজি অ্যারোন ফিঞ্চ

বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে নিয়মিত অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ এবং সহ-অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারকে হারিয়ে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট দল এখন পড়ে গেছে অধিনায়ক সংকটে। কেলেঙ্কারির ঘটনায় এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ এবং সহ-অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার। ওয়ার্নার তো আজীবনই অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক কিংবা সহ-অধিনায়ক হতে পারবেন না আর। ফলে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে আপতকালীন দায়িত্ব সামাল দেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান টিম পেইন।

তবে পেইনকে স্থায়ী অধিনায়ক করার পরিকল্পনা নেই ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার। এদিকে এবার আইপিএল শেষে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট দল ইংল্যান্ডে যাবে ওয়ানডে সিরিজ খেলতে, যা শেষ হতে না হতেই দুবাইয়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে অসিদের খেলতে হবে টেস্ট সিরিজ। ফলে নতুন অধিনায়ক খোঁজার অভিযান শুরু করে দিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

এরই মাঝে নিজের দেশকে নেতৃত্ব দেয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান অ্যারোন ফিঞ্চ। অস্ট্রেলিয়ান সংবাদ মাধ্যমের সাথে আলাপকালে ফিঞ্চ বলেন, ‘এই দায়িত্বটি (অধিনায়কত্ব করার) পেলে মন্দ হয় না, যদিও আমি এটি নিয়ে খুব একটা ভাবছি না। তবে দায়িত্বটি দেয়া হলে আমি অবশ্যই নিয়ে নিবো। সামনের সময়গুলো খুব একটা সহজ হতে যাচ্ছে না অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটের জন্য।’

নিয়মিত অধিনায়ক, সহ-অধিনায়কের অভাবটাও থাকবে বলেই মনে করেন উদ্বোধনী এই ব্যাটসম্যান। তবে এখন যারা পাইপলাইনে আছেন, তারা ঠিকই সামলে নিতে পারবে বলে মনে করেন ফিঞ্চ। তিনি বলেন, ‘স্মিথ-ওয়ার্নারের মতো বিশ্বসেরাদের হারানো খুব বড় একটা ক্ষতি আমাদের জন্য। তাদের অভাব বোধ করতেই হবে। যা হয়েছে তা হতাশাজনক। তবে পাইপলাইনে আরও অনেক যোগ্য ক্রিকেটার আছে আমাদের। খুব বেশি সমস্যা হবে না আশা করি।’

এখনো পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ৮৮টি ওয়ানডে এবং ৩৬টি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন ফিঞ্চ। যদিও এখনও পর্যন্ত সাদা সার্জিতে (টেস্ট) অস্ট্রেলিয়ার হয়ে মাঠেই নামা হয়নি তার। এর মধ্যে ৯টি টি-টোয়েন্টি এবং ২টি ওয়ানডে ম্যাচে নিজের দেশকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি। পুনরায় দায়িত্ব পেলে আবার অধিনায়কত্ব করতে কোনো আপত্তি নেই মারকুটে এই ওপেনারের।

এসএএস/আইএইচএস/আরআইপি