‘সিলেবাসের বাইরে’ থাকা জাদেজাতেই কুপোকাত টাইগাররা

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:০৭ এএম, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

পরদিন আপনার ইতিহাস বিষয়ে পরীক্ষা ভেবে রাত জেগে পড়াশোনা করে দারুণ প্রস্তুতি নিলেন আপনি, কিন্তু সকালে উঠে দেখলেন রুটিনে লেখা পরীক্ষা হবে পৌরনীতি বিষয়ে। অগত্যা কপাল চাপড়ে অনিশ্চিত ফলাফলের শঙ্কা নিয়েই বসে গেলেন পরীক্ষা দিতে। এতে করে ফলাফল যে অন্তত নিজের পক্ষে আসবে না তা বেশ ভালো করেই জানা আপনার।

ঠিক এমনটাই হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাথে। ভারতের বিপক্ষে নামার আগে টাইগার টিম ম্যানেজম্যান্টের ভাবনা জুড়ে ছিল তাদের দুই রিস্ট স্পিনার কুলদ্বীপ যাদভ ও ইয়ুজভেন্দ্র চাহাল আফগানিস্তানের দুই স্পিনার রশিদ খান ও মুজিব উর রহমানের কাছে নাকাল হওয়ার পর ভারতের বিপক্ষে নামার আগে বাংলাদেশ দলের পরিকল্পনা এমনটাই হওয়াই ছিল স্বাভাবিক।

কিন্তু মূল ম্যাচে দেখা গেলো প্রশ্নে এসেছে রবীন্দ্র জাদেজা নামক নতুন অধ্যায়। যে অধ্যায়েই ধরা বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। দুই রিস্ট স্পিনার কুলদ্বীপ ও চাহাল কোন উইকেট না পেলেও ৪৪২ দিন পর ওয়ানডে খেলতে নেমে একাই ৪ উইকেট নিয়েছেন জাদেজা, তাও মাত্র ২৯ রান খরচায়।

দুই রিস্ট স্পিনারের চিন্তায় মগ্ন বাংলাদেশ দল যে জাদেজার ব্যাপারে তেমন ভাবেইনি তা জানা গেল ম্যাচ শেষে দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার কথায়। তবে জাদেজা ৪ উইকেট পেলেও বেশিরভাগই বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের দেয়া উপহার সেটিও মনে করিয়ে দিলেন অধিনায়ক।

মাশরাফি বলেন, ‘উইকেট উপহার দেয়ার ব্যাপারে কথা বলা যায়। সবাই যেভাবে আউট হয়েছে, শট খেলতে গিয়েই ধরা পড়েছে। বিশেষ করে ওইসব মুহুর্তে জুটি করে নিয়ে খেললে ২৫০-২৬০ হতে পারতো। ওদের রিস্ট স্পিনাররা কিন্তু আজ উইকেট পায়নি। জাদেজা হঠাৎ করে এসে চার উইকেট নিয়ে গেছে। সবই আমাদের ব্যাটসম্যানের দোষে প্রায়।’

ম্যাচের পরে পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানেই ম্যাচের দায় ব্যাটসম্যানদের কাঁধেই দেন অধিনায়ক। প্রতি ম্যাচেই ব্যাটসম্যানদের এমন বিপর্যয় মেনে নেয়া যায় না বলে মনে করেন টাইগার অধিনায়ক। ভারতের বিপক্ষে প্রথম ৩০ ওভারেই ১০০ রান হওয়ার আগে ৬-৭ উইকেট হারিয়ে ফেলায় তখনই ম্যাচ থেকে ছিটকে গিয়েছিল বাংলাদেশ।

অধিনায়ক বলেন, ‘পর পর দুই দিন ব্যাটিং ধসের মুখোমুখি হতে হলো। দ্রুত উইকেট পড়ে গেলে ফেরাটা খুবই কঠিন। প্রত্যেক ম্যাচেই শুরুতে দুই-তিনটা উইকেট পড়ে যাচ্ছে । এতে ড্রেসিংরুমও কিছুটা চিন্তিত হয়ে যায়। প্রথম ম্যাচে আমরা সামলে নিতে পেরেছিলাম। পরের ম্যাচে ওদের বিশ্বমানের কিছু বোলার ছিল, যার ফলে আমরা পারিনি। আজকে আবার আমরা জুটি করতে পারতাম। সেটিও হয়নি। এত উইকেট পড়াতে আসলে আমরা প্রথম ৩০ ওভারে খেলার বাইরে চলে গেছি।’

এসএএস/এমএস