ডাবল সেঞ্চুরির সঙ্গে রেকর্ডও গড়লেন হোল্ডার

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:২৮ পিএম, ২৬ জানুয়ারি ২০১৯

বাংলাদেশে এসে টেস্ট সিরিজে হয়েছে হোয়াইটওয়াশ। একটিতে তো ওয়েস্ট ইন্ডিজ টাইগারদের কাছে ইনিংস ব্যবধানে হেরেছিল। অথচ সেই দলটিই কি না নিজ দেশের মাটিতে গিয়ে টেস্ট ক্রিকেটের অন্যতম পরাশক্তি ইংল্যান্ডকে রীতিমত নাকানি-চুবানি খাইয়ে ছাড়ছে। ক্যারিবীয় বোলারদের পেস তোপের মুখে চোখে সর্ষে ফুল দেখতে শুরু করেছে ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা।

যে উইকেটে ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা রীতিমত বিধ্বস্ত, সে উইকেটে রানের উৎসব করছে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বার্বাডোজে সফরকারী ইংল্যান্ডের সামনে ৬২০ রানের বিশাল লিড নিয়ে নিলো ক্যারিবীয়রা। ডাবল সেঞ্চুরি করলেন ক্যারিবীয় অধিনায়ক জ্যাসন হোল্ডার। ২২৯ বলে ২০২ রান করে অপরাজিত থেকে মাছ ছাড়েন তিনি।

বার্বাডোজের কেনসিংটন ওভালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রথম ইনিংসে করা ২৮৯ রানের জবাব দিতে নেমে মাত্র ৭৭ রানে অলআউট হয়ে যায় ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ইংলিশদের কোনো ছাড় দিল না ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বরং, বোলার হোল্ডার যখন পুরোদস্তুর ‘টেস্ট’ ব্যাটসম্যান হয়ে উঠলো, তখন রীতিমত অসহায় হয়ে পড়লো ইংলিশরা।

শেন ডওরিচকে নিয়ে সপ্তম উইকেট জুটিতে ২৯৫ রান তুলে রেকর্ডের পাতায় নাম লিখলেন হোল্ডার। দু’জন মিলে ছিলেন অপরাজিত। সপ্তম উইকেটে হোল্ডার এবং ডওরিচের গড়া ২৯৫ রানের জুটি রয়েছে সর্বকালের সেরা তিন নম্বরে। ৭ম উইকেটে ৩৪৭ রান নিয়ে শীর্ষে রয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজেরই ডেনিস অ্যাটকিনসন এবং ক্ল্যারিমন্তে দেপেইজা। ১৯৫৫ সালে এ রেকর্ড গড়েন এই দুই ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান।

Jason-Holder-1

১৯৫৫ সালেই ৭ম উইকেট জুটিতে ৩০৮ রান নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে বসে আছেন পাকিস্তানের ওয়াকার হাসান এবং ইমতিয়াজ আহমেদ। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে লাহোরে এই জুটি গড়েন তারা দু’জন।

জ্যাসন হোল্ডারের ক্যারিয়ারে এর আগে কোনো ডাবল সেঞ্চুরি তো দুরে থাক, সর্বোচ্চ রানের ইনিংস ছিল ১১০ রানের। সেটাকে পেছনে ফেলে এবার ২০২ রানের মহাকাব্যিক ইনিংস খেলেন তিনি। অ্যান্ডারসন, মঈন আলি, বেন স্টোকস, স্যাম কুরান, আদিল রশিদ, জো রুট কিংবা কিটন কেনিংসদের কারো বলকেই পরোয়া করলেন না তিনি।

৯৯ বলে করেন সেঞ্চুরি। ১৮৫ বলে করেন ১৫০ রান এবং ২২৯ বলে পূরণ করেন ডাবল সেঞ্চুরি। ২৩টি বাউন্ডারির সঙ্গে ৮টি ছক্কার মারও মারেন হোল্ডার। তার সঙ্গে ২৯৫ রানের জুটি গড়ার পথে ১১৬ রানে অপরাজিত থাকেন শেন ডওরিচ। শেষ পর্যন্ত ৬ উইকেটে ৪১৫ রান করার পর ইনিংস ঘোষণা করেন হোল্ডার।

৬২৮ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে অবশ্য শুরুটা ভালো করেছে ইংল্যান্ড। চতুর্থ দিনের শেষ বিকেলে ২০ ওভার ব্যাট করে কোনো উইকেট না হারিয়ে ৫৬ রান করেছে ইংল্যান্ড। ৩৯ রানে জো বার্নস এবং ১১ রানে অপরাজিত রয়েছেন কিটন জেনিংস। এখনও জয়ের জন্য ৫৭২ রান প্রয়োজন ইংল্যান্ডের। আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রয়োজন ১০ উইকেট। সময় আছে মাত্র একটি দিন হাতে।

আইএইচএস/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :