সাকিবের বিধ্বংসী বোলিংয়ে ইংলিশ যুবাদের হারাল বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:২০ এএম, ২৮ জানুয়ারি ২০১৯

কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ইংল্যান্ড অনুর্ধ্ব-১৯ দলের বিপক্ষে একমাত্র টি-টোয়েন্টি ম্যাচে সহজ জয় পেয়েছে বাংলাদেশের যুবারা। তানজিম হাসান সাকিবের বিধ্বংসী বোলিংয়ের পর মাহমুদুল-পারভেজদের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ৭ উইকেটে জিতেছে বাংলাদেশ।

সাকিবের বোলিং তোপে নিজেদের বিশ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১২০ রানের বেশি করতে পারেনি ইংল্যান্ড। তানজিম সাকিব একাই নেন ৪ উইকেট। পরে মাহমুদুল ৪৪ ও পারভেজ ৩৩ রানের ইনিংস খেললে ৯ বল ও ৭ উইকেট হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ।

ম্যাচে টসে জিতে আগে ব্যাট করতে নামে ইংল্যান্ড। ইনিংসের দ্বিতীয় ও নিজের প্রথম ওভারেই জোড়া আঘাত হানেন তানজিম। নিজের পরের ওভারে ফেরান আরো এক ব্যাটসম্যানকে। মাঝে ইনিংসের তৃতীয় ওভারে উইকেট শিকারে নাম লেখান আরেক বোলার শামীম হাসানও।

পাঁচ ওভারের মধ্যে মাত্র ৩৭ রানেই ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলে ইংলিশরা। তবে পঞ্চম উইকেট জুটিতে ৪৬ রানের জুটি গড়েন হিল ও গোল্ডসওয়ার্থি। তবে রানের গতি বাড়াতে পারেননি তারা। হিল ৩৪ রান করতে খেলেন ৩৫ বল, গোল্ডসওয়ার্থি ২৬ বল থেকে করেন ১৭ রান।

শেষদিকে জর্জ ব্যাল্ডারসন ১৬ এবং লুক হলম্যান ১১ রান করে বলার মতো সংগ্রহ পায় সফরকারীরা। স্বাগতিকদের পক্ষে ৪ ওভারে মাত্র ৩০ রান খরচায় ৪ উইকেট নেন তানজিম সাকিব। ৩ ওভারে ২১ রান খরচ করে উইকেটশূন্য থাকেন সময়ের আলোচিত লেগস্পিনার রিশাদ হোসেন।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতেই ৫০ রান করে ফেলেন তানজিদ হাসান ও মাহমুদুল হাসান। ইনিংসের অষ্টম ওভারে ফেরেন তানজিদ। ৪ চার ও ১ ছক্কার মারে ২২ বল থেকে ২৮ রান করেন তিনি।

দ্বিতীয় উইকেটে ৪৬ রানের জুটি গড়ে ম্যাচের ফল নিজেদের পক্ষে নিয়ে আসেন মাহমুদুল ও পারভেজ। মাত্র ৬ রানের জন্য ফিফটি করতে পারেননি মাহমুদুল। ৪টি চারের মারে ৫৪ বল খেলে ৪৪ রান করেন তিনি।

আউট হওয়ার আগে পারভেজের ব্যাট থেকে আসে ১ চার ও ২ ছক্কার মারে ২৯ বলে ৩৩ রানের ইনিংস। শেষদিকে অধিনায়ক আকবর আলী ৩ বলে ২ চারের মারে ৮ রান করে দলের জয় নিশ্চিত করেন।

টি-টোয়েন্টি ম্যাচ জেতার পরে ইংলিশ যুবাদের বিপক্ষে মঙ্গলবার থেকে ওয়ানডে সিরিজের মিশনে নামবেন তানজিম-মাহমুদুলরা। তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ দুইটি মাঠে গড়াবে বৃহস্পতি ও শনিবার। এরপর দুইটি চারদিনের যুব টেস্ট খেলবে দুই দল। ফেব্রুয়ারির ৭ এবং ১৮ তারিখে মাঠে গড়াবে সে দুই ম্যাচ।

এসএএস/এমএস