চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেই ম্যাচ ভোলেনি নিউজিল্যান্ড

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:১৫ পিএম, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

রাত পোহালেই তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে মাঠে নামবে বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ড। দুই দলের মুখোমুখি পরিসংখ্যানে টাইগাররা অনেক পিছিয়ে থাকলেও, দুই দলের সবশেষ দুই সাক্ষাতেই জয়ী দলের নাম বাংলাদেশ। ২০১৭ সালে আয়ারল্যান্ডের মাঠে ত্রিদেশীয় সিরিজে এবং একই বছর ইংল্যান্ডের মাটিতে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ।

চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে পাওয়া সেই পাঁচ উইকেটের জয়টি বাংলাদেশকে তুলেছিল টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে। যা এখনো পর্যন্ত আইসিসি ইভেন্টে বাংলাদেশের সেরা সাফল্য। সে ম্যাচে ২৬৬ রানের লক্ষ্যে মাত্র ৩২ রানেই ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল বাংলাদেশ। পরে সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের বীরোচিত সেঞ্চুরিতে জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছিল টাইগাররা।

দুই বছর আগের সে ম্যাচের কথা এখনো ভোলেনি নিউজিল্যান্ড। বিদেশের কন্ডিশনেও যে কিউইদের হারাতে পারে বাংলাদেশ, তারই প্রমাণ ছিল চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ম্যাচটি- খোদ নিউজিল্যান্ড ওপেনার মার্টিন গাপটিল মনে করছেন এমনটা।

মঙ্গলবার ম্যাচের আগের দিন নেপিয়ারের ম্যাকলিন পার্কে গাপটিল বলেন, ‘বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজটা মোটেও সহজ হবে না। কারণ তারা খুবই ভালো দল। আপনারাও জানেন কয়েক বছর আগে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ম্যাচে আমাদের হারানোর মাধ্যমে তারা নিজেদের সামর্থ্যের প্রমাণ দিয়েছে।’

তবে প্রথম ম্যাচটি জিতে সিরিজে ভালো শুরুর দিকেই বেশি মনোযোগ ডানহাতি এ মারকুটে ওপেনারের। তিনি বলেন, ‘আমরা আশা করছি এবং এ ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী যে প্রথম ম্যাচে আমরা নিজেদের মেলেদের ধরতে পারবো এবং সিরিজে ভালো শুরু করতে পারব। আপনাকে প্রতি ম্যাচ থেকেই কিছু না কিছু শিখতে হবে। এটাই খেলার সৌন্দর্য্য। আগামীকালের ম্যাচটি নতুন লড়াই। আমরা জয়ের জন্য আত্মবিশ্বাসী।’

এসময় বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সহ-অধিনায়ক এবং বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের ইনজুরির ব্যাপারে গাপটিল বলেন, ‘কোনো সন্দেহ নেই যে সাকিব আল হাসান বিশ্বমানের একজন ক্রিকেটার এবং সে সারাবছর ধরে অনেক বেশি খেলে থাকে। তবে ক্রিকেটে ইনজুরি হয়েই থাকবে এবং এটা তার জন্যই খুবই দুঃখজনক। সে আপাতত একটা বিশ্রাম পেল এবং খুব সম্ভবত টেস্ট সিরিজেই ফিরবে!’

এসএএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :