লড়াইটা কোহলি-স্টার্কেরও

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:০১ এএম, ০৯ জুন ২০১৯

নির্দ্বিধায় বর্তমানে সময়ের সেরা ব্যাটসম্যান ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। আইসিসির র‍্যাংকিংয়েও তারই সাক্ষ্য দিচ্ছে। রান করার চেয়ে সহজ আর যেন কোনো কাজ নেই তার। তাইতো মাত্র ২২৮টি ওয়ানডে খেলেই ৪১টি সেঞ্চুরি করে ফেলেছেন এই রান মেশিন।

অন্যদিকে, র‍্যাংকিংয়ে হয়তো ২১ নম্বরে আছেন অস্ট্রেলিয়ান পেসার মিচেল স্টার্ক। তবে বর্তমানে সময়ে তিনি যে অন্যতম সেরা বোলারদের একজন তা নিয়ে কারও দ্বিমত থাকার কথা নয়। গত বিশ্বকাপে হয়েছিলেন টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি। তা ছাড়া এবারের বিশ্বকাপেও আলো ছড়াচ্ছেন স্টার্ক। টুর্নামেন্টের প্রথম ফাইফার ছিল তারই দখলে।

kohli.jpg

অবধারিতভাবে আজ ভারত-অস্ট্রেলিয়া লড়াইয়ে তাই ব্যবধান গড়ে দিতে চলেছেন এ দু'জন সেরা ক্রিকেটারের একজন। চলুন এবার এই দুই ম্যাচ উইনার সম্পর্কে কিছু জেনে নেয়া যাক :

বিরাট কোহলি : বিশ্বকাপের অভিষেক ম্যাচেই সেঞ্চুরি করে সবাইকে নিজের আগমনী বার্তা দিয়ে রেখেছিলেন কোহলি। তবে এই প্রথম দলের অধিনায়ক হয়ে বিশ্বকাপ খেলতে এসেছেন তিনি। আর সেটা হয়তো কিছুটা চাপে রেখেছে তাকে। ইংল্যান্ডে পা রাখার পর থেকে এখনো কোনো ফিফটি নেই তার। এর মধ্যে দু'বার ক্লিন বোল্ড হয়েছেন তিনি। তবে প্রতিপক্ষ যখন অস্ট্রেলিয়া তখন কোহলির বিগত দিনের পারফরম্যান্স আশা যোগাচ্ছে ভারতীয়দের। এই টপ-অর্ডার ব্যাটসম্যানের ৪১ সেঞ্চুরির মধ্যে ৮টি এসেছে অজিদের বিপক্ষে। এ ছাড়াও ইংল্যান্ডের মাটিতেও কোহলির পারফরম্যান্স বেশ আশা জাগানিয়া। ব্রিটিশদের মাটিতে ২৩ ম্যাচে ১টি শতকে মোট ৮৯১ রান করেছেন টিম ইন্ডিয়ার অধিনায়ক। গড় ৫২!

kohli.jpg

মিচেল স্টার্ক : দীর্ঘসময়ের ইনজুরি কাটিয়ে উঠে বিশ্বকাপের জন্য নিজেকে প্রস্তুত করতে প্রায় ৭ মাস মাঠের বাইরে ছিলেন বাঁহাতি পেসার স্টার্ক। সে কারণেই বর্তমানে বোলারদের র‍্যাংকিংয়ে ২১তম স্থানে আছেন তিনি। তবে বিশ্বকাপে বল হাতে তুলে নিয়েই নিজের ভয়ঙ্কর রূপ দেখাতে শুরু করেছেন স্টার্ক। প্রথম ম্যাচে মাত্র ১ উইকেট পেলেও, দ্বিতীয় ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব্যাটিং লাইনআপকে গতি, ইয়র্কার আর বাউন্সারে ধসিয়ে দেন তিনি। যেমনটা প্রতিপক্ষকে তিনি দিয়েছিলেন ২১৫ বিশ্বকাপে। এদিকে ভারতের বিপক্ষে সফলও স্টার্ক। কোহলিদের বিপক্ষে ৭ ম্যাচ খেলে তার উইকেট সংখ্যা ১২! সবশেষ ভারতের বিপক্ষে তিনি খেলেছিলেন ২০১৫ বিশ্বকাপ। সেই ম্যাচে মাত্র ২৮ রানের বিনিময়ে ২ উইকেট তুলে নেন তিনি।

এসএস/এমএস