ব্যাটে-বলে অস্ট্রেলিয়ানরাই এখন সেরা

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৩৮ পিএম, ২৬ জুন ২০১৯

এবারের বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী কিংবা সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী হবেন কে? বিশ্বকাপ শুরুর আগে এ নিয়ে তুমুল আলোচনা ছিল ক্রিকেট ভক্ত-সমর্থকদের মধ্যে। তবে বিশ্বকাপের মাঝ পথ পেরিয়ে যাওয়ার পর আপাতত একটা চিত্র দাঁড়িয়ে যাচ্ছে, কারা কারা হতে পারেন সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক এবং কারা কারা হতে পারেন সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী।

সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী এবং সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারীর তালিকায় নিরঙ্কুশভাবে কেউ এগিয়ে নেই। আজ এক ম্যাচে কেউ শীর্ষে উঠছেন তো, কাল অন্য ম্যাচে অন্য কেউ উঠে যাচ্ছেন শীর্ষে। এমনই ইঁদুর-দৌড় লুকোচুরি খেলা চলছে এই দুটি ব্যক্তিগত অর্জনের শীর্ষস্থান দখল করতে।

সবচেয়ে বড় কথা, ব্যক্তিগত এই লড়াইয়ে সামিল বাংলাদেশেরও এক ব্যাটসম্যান। তিনি সাকিব আল হাসান। বার বার অস্ট্রেলিয়ার ডেভিড ওয়ার্নারকে পেছনে ফেলে শীর্ষে উঠে আসছেন তিনি। আবার ওয়ার্নার সাকিবকে পেছনে ফেলে শীর্ষে উঠছেন। আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের এই দুই সতীর্থের ব্যক্তিগত লড়াইয়ে জমে উঠেছে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকার শীর্ষস্থানটি।

Run-scorer

আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে সাকিব আল হাসানই ছিলেন শীর্ষে। তার ছিল ৪৭৬ রান। ২৯ রান পিছিয়ে থেকে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ব্যাট করতে নামেন ওয়ার্নার। করেন ৫৩ রান। সাকিবকে ছাড়িয়ে উঠে গেছেন ২৪ রান উপরে। এখন তার নামের পাশে শোভা পাচ্ছে বরাবর ৫০০ রান।

সাকিবকে ছাড়িয়ে গেছেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক অ্যারোন ফিঞ্চও। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তিনি আউট হন বরারবর ১০০ রান করে। তার নামের পাশে এখন শোভা পাচ্ছে ৩৯৪ রান। সাকিব আল হাসান নেমে গেলেন ৩ নম্বরে। ২ জুলাইয়ের আগে তিনি মাঠেও নামছেন না, লড়াইয়ে ফেরারও সুযোগ পাচ্ছেন না।

বোলিংয়েও অস্ট্রেলিয়ার আধিপত্য। অসি পেসার মিচেল স্টার্ক গত বিশ্বকাপেও হয়েছিলেন টুর্নামেন্ট সেরা। এবারও অব্যাহত রেখেছেন তার দুর্দান্ত ফর্ম। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে খেলতে নামার আগে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারীর তালিকায় তিনি ছিলেন ইংলিশ পেসার জোফরা আর্চার এবং পাকিস্তানি পেসার মোহাম্মদ আমিরের সঙ্গে সমান উচ্চতায়। ১৫ উইকেট করে ছিল এই তিন বোলারের নামের পাশে।

Wicket-taker

তবে, লর্ডসে জোফরা আর্চার পেলেন মাত্র ১ উইকেট। তার শিকার সংখ্যা হলো ১৬টি। অন্যদিকে মিচেল স্টার্ক পেলেন ৪ উইকেট। সবাইকে ছাড়িয়ে তিনি উঠে গেলেন অনেক ওপরে। তার শিকার সংখ্যা এখন ১৯টি। আজ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে রয়েছে মোহাম্মদ আমিরের ম্যাচ। তিনি কি করেন, সেটাই দেখার বিষয়।

আপাতত ব্যাট এবং বল- দুই জায়গাতেই অস্ট্রেলিয়ানদের আধিপত্য। রান সংগ্রহেও শীর্ষে অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যানরা এবং উইকেট শিকারেও শীর্ষে অস্ট্রেলিয়ান বোলার।

সাকিব আল হাসান নিশ্চত এক ক্ষেত্রে সবার চেয়ে এগিয়ে। সেটা অলরাউন্ড পারফরম্যান্স। ব্যাট হাতে ৪৭৬ রানের পাশাপাশি বল হাতে ১০ উইকেট। এই বিশ্বকাপে নয় শুধু, কোনো বিশ্বকাপেই কেউ করতে পারেনি।

Starc

আরও একটি ক্ষেত্রে এগিয়ে সাকিব। চলতি বিশ্বকাপে সবচেয়ে সেরা বোলিং ফিগার সাকিবের। ২৯ রান দিয়ে তিনি নিয়েছেন ৫ উইকেট, আফগানিস্তানের বিপক্ষে। তার চেয়ে সেরা বোলিং করতে পারেননি আর কেউ। মোহাম্মদ আমির অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৩০ রান দিয়ে নিয়েছিলেন ৫ উইকেট।

এক ইনিংসে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের ক্ষেত্রেও এগিয়ে অস্ট্রেলিয়া। ডেভিড ওয়ার্নার বাংলাদেশের বিপক্ষে করেছিলেন ১৬৬ রান। যা এখনও সর্বোচ্চ। ১৫৩ রান নিয়ে পরের জায়গায় আছেন জেসন রয় এবং অ্যারোন ফিঞ্চ।

সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী ১০ ব্যাটসম্যান

খেলোয়াড়

ম্যাচ

রান

সর্বোচ্চ

গড়

স্ট্রা. রে

১০০

৫০

ডেভিড ওয়ার্নার

৫০০

১৬৬

৮৩.৩৩

৮৭.২৬

অ্যারোন ফিঞ্চ

৪৯৬

১৫৩

৭০.৮৫

১০৩.৯৮

সাকিব আল হাসান

৪৭৬

১২৪*

৯৫.২০

৯৯.১৬

জো রুট

৪৩২

১০৭

৭২.০০

৯২.৭০

কেন উইলিয়ামসন

৩৭৩

১৪৮

১৮৬.৫০

৮০.৫৬

মুশফিকুর রহীম

৩২৭

১০২*

৬৫.৪০

৯২.৩৭

রোহিত শর্মা

৩২০

১৪০

১০৬.৬৬

৯৪.৯৫

বেন স্টোকস

২৯১

৮৯

৫৮.২০

৯০.৯৩

স্টিভেন স্মিথ

২৮২

৭৩

৪০.২৮

৯১.৫৫

ইয়ন মরগ্যান

২৭৪

১৪৮

৪৫.৬৬

১২২.৩২

সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী ১০ বোলার

খেলোয়াড়

ম্যাচ

ওভার

রান

উইকেট

সেরা

গড়

মিচেল স্টার্ক

৬৪.৪

৩৪৭

১৯

৫/৪৬

১৮.২৬

জোফরা আরচার

৬৩.৫

৩২৫

১৬

৩/২৭

২০.৩১

মোহাম্মদ আমির

৪৬.০

২১৯

১৫

৫/৩০

১৪.৬০

লকি ফার্গুসন

৪৫.৩

২১৭

১৪

৪/৩৭

১৫.৫০

মার্ক উড

৫১.৪

২৬২

১৩

৩/১৮

২০.১৫

প্যাট কামিন্স

৬৪.১

৩১৩

১১

৩/৩৩

২৮.৪৫

ইমরান তাহির

৫৭.০

২৭৯

১০

৪/২৯

২৭.৯০

মোহাম্মদ সাইফুদ্দীন

৪২.০

২৮১

১০

৩/৭২

২৮.১০

সাকিব আল হাসান

৫৪.০

৩০১

১০

৫/২৯

৩০.১০

মোস্তাফিজুর রহমান

৫২.১

৩৫০

১০

৩/৫৯

৩৫.০০

আইএইচএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :