অনেক হাই প্রোফাইল কোচই আগ্রহী ছিলেন : পাপন

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৬:৫১ পিএম, ১৭ আগস্ট ২০১৯

বিশ্বকাপ রানার্সআপ নিউজিল্যান্ড কোচ মাইক হেসন, পাকিস্তানের সদ্য বিদায়ী কোচ মিকি আর্থার, ইংল্যান্ডের সাবেক কোচ অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার, শ্রীলঙ্কার মাহেলা জয়াবর্ধনে, পাকিস্তানের সাবেক কোচ গ্র্যান্ট ফ্লাওয়ারসহ কয়েকজনের নাম জাগো নিউজসহ প্রিন্ট, ইলেক্ট্রনিক্স এবং অনলাইন মিডিয়ায় প্রকাশিত হয়েছে।

তবে বিসিবি শুরু থেকেই যে সব কোচ তাদের সাথে যোগাযোগ করছেন, কথাবার্তা বলেছেন, সামনা সামনি না হয় টেলিকনফারেন্সে ইন্টারভিউ দিয়েছেন, তাদের নামধাম ও পরিচয় গোপন রেখেছিল। বোর্ডের পক্ষ থেকে বার বার বলা হয়েছে, আগ্রহী কোচদের অনুরোধেই শেষ পর্যন্ত তাদের পরিচয় গোপন রাখার চেষ্টাও ছিল বহাল।

তবে আজ রাসেল ডোমিঙ্গোর নাম আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করতে গিয়ে বিসিবি বিগ বস নাজমুল হাসান পাপন আনুষ্ঠানিকভাবে জানান যে, অনেক নামকরা কোচই বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাথে কাজ করতে আগ্রহী ছিলেন।

ডোমিঙ্গোর নাম আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করার আগে উপস্থিত সাংবাদিকদের পাপন জানান, আজ আপনাদের সঙ্গে যে জন্য আলাপ করতে এসেছি- হেড কোচ। এর মধ্যে পেস বোলিং কোচ, স্পিন কোচ নিয়োগ দিয়েছি। আরও কয়েকজন আছে। তবে প্রধান কোচের ব্যাপারে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত একটা জিনিস দেখে। তাহলো এখন যারা এভেইলেবেল আছেন সবাই আমাদের সঙ্গে কাজ করার জন্য ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন। তাদের সবাইকে ধন্যবাদ।’

পাপন কারো নাম না উল্লেখ করে আরও জানান যে, বাংলাদেশের কোচ হতে আগ্রহী ছিলেন অনেক হাই প্রোফাইল কোচই। তাই বিসিবির জন্য কোচ নির্বাচন করাটা ছিল কঠিন। এ সম্পর্ক বিসিবি প্রধানের ভাষ্য এ রকম, ‘কারণ অনেক নামি দামি কোচ আগ্রহ দেখিয়েছে বাংলাদেশের কোচ হওয়ার জন্য। তাই আমাদের জন্য সিদ্ধান্ত নেওয়া খুব কঠিন ছিল।’

নাম না বলে বিসিবি বিগ বস জানান, শেষ পর্যন্ত তিনজন (রাসেল ডোমিঙ্গো, মাইক হেসন আর মিকি আর্থার) ছিলেন টপ লিস্টে। এর মধ্যে ক্রাইটেরিয়া দেখতে হয়েছে। প্রথম যেটা, সেটা হচ্ছে এভেইলেবেলিটি। অনেকেই আমাদের হেড কোচ হতে চেয়েছেন; কিন্তু এই মুহূর্তে আসতে চাচ্ছেন না। আরেকটা খুব গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হলো ফুলটাইম। কেউ আছেন ১০০ দিন, যেমন আমাদের সঙ্গে ভেট্টোরির হয়েছে। কেউ সিরিজের আগে আসবে এমন। ওগুলোও ছিল। এসব বিবেচনা করে আমরা দেখেছি, এখনই কারা এভেইলেবল আছে এবং কারা ফুলটাইম দিতে পারবে। এর সঙ্গে আরও কিছুও ছিল।’

সেই আরও কিছুটা কি তা ভাঙেননি পাপন। তবে সেই তিনজন থেকেও একদম শেষ দিকে এসে প্রার্থী ছিলেন দু’জন। মাইক হেসন আর রাসেল ডোমিঙ্গো। তাই তো বিসিবি সভাপতির কথা, সব কিছু দেখে আমাদের হাতে দু’জন ছিল। তার মধ্য থেকে একজনকে চূড়ান্ত করেছি। সেটাই আজ আপনাদের বলব।

আমাদের জাতীয় দলের হেড কোচ হিসেবে রাসেল ক্রেইগ ডোমিঙ্গোকে নিয়োগ দিচ্ছি। গতকালই এটা কনফার্ম হয়েছে। আজ আপনাদের সামনে ডিসক্লোজ করলাম।

এআরবি/আইএইচএস/এমএস