সেই রাহানের ব্যাটেই ভারতের স্বস্তি

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৩৭ এএম, ২৩ আগস্ট ২০১৯

সময়টা ভালো যাচ্ছিলো না ভারতের মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান আজিঙ্কা রাহানের। টেস্ট স্পেশালিস্ট হিসেবে দলে জায়গা পেলেও, সাদা পোশাকের এ ক্রিকেটে সবশেষ সেঞ্চুরি করেছেন দুই বছরেরও বেশি সময় আগে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সে সেঞ্চুরির পর আরও ১৭ ম্যাচে ২৮ ইনিংস খেলে মাত্র ২৫ গড়ে করেছিলেন ৬৯৬ রান। হাফসেঞ্চুরির দেখা পেয়েছিলেন মাত্র ৫ বার।

তাই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চলতি সিরিজটা একপ্রকার শেষ সুযোগই ছিলো তার জন্য। ভারতের ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরাও বলাবলি করছিলেন, প্রয়োজনের সময়ে ব্যাটকে ঢাল বানাতে ব্যর্থ হলে আর নেয়া হবে না রাহানেকে। তাদের সবাইকে কী দারুণ জবাবই না দিলেন মহারাষ্ট্রের ৩১ বছর বয়সী এ ব্যাটসম্যান।

অ্যান্টিগায় দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে ক্যারিবীয় পেসের সামনে রীতিমতো অসহায় বনে গিয়েছিল ভারতের টপঅর্ডার। এমনকি দুই অঙ্কে পেতে পারেননি বর্তমান সময়ের অন্যতম ব্যাটিং জিনিয়াস বিরাট কোহলিও। সেখানে নিজের ব্যাটকে ঢাল বানিয়ে লড়ে গেছেন রাহানে, স্বস্তি এনে দিয়েছেন ড্রেসিংরুমে।

বৃষ্টিবিঘ্নিত প্রথম দিনে খেলা হয়েছে ৬৮.৫ ওভার। টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে এ সময়ের মধ্যে ৬ উইকেট হারিয়ে ২০৩ রান করতে সক্ষম হয়েছে ভারত। এ রানও হয়তো তারা পেত না, যদি না কেমার রোচ-শ্যানন গ্যাব্রিয়েলদের বিপক্ষে একাই লড়ে যেতেন রাহানে। ক্যারিয়ারের ১৮তম অর্ধশতকে তিনি করেছেন ৮১ রান।

রোচ আর গ্যাব্রিয়েলের পেসে কুপোকাত হয়ে মাত্র ২৫ রানেই সাজঘরে ফিরে যান তরুণ ওপেনার মায়াঙ্ক আগারওয়াল (৫), টেস্ট স্পেশালিস্ট চেতেশ্বর পুজারা (২) এবং অধিনায়ক বিরাট কোহলি (৯)। চতুর্থ উইকেটে আরেক ওপেনার লোকেশ রাহুলকে নিয়ে ৬৮ রানের জুটি গড়েন রাহানে। রাহুল ফিরে যান ব্যক্তিগত ৪৪ রানের মাথায়।

এরপর হানুমা বিহারীর সঙ্গে আরও একটি কার্যকরী জুটি গড়েন রাহানে। যেখানে ভারতের সংগ্রহে যোগ হয় ৮২ রান। এর মধ্যে বিহারীর অবদান ৩২। দলীয় ১৭৫ রানে পঞ্চম ব্যাটসম্যান হিসেবে ফিরে যান রোহিত শর্মাকে বাইরে রেখে সুযোগ পাওয়া বিহারী। ততক্ষণে নিজের ফিফটি তুলে নিয়েছেন রাহানে।

কিন্তু দিনটি শেষ করে আসতে পারেননি তিনি। শ্যানন গ্যাব্রিয়েলের ভেতরে ঢোকা বলে ইনসাইড এজ হয়ে সাজঘরে ফিরে যান তিনি। আউট হওয়ার আগে ১৬৩ বলে খেলেন ৮১ রানের ইনিংস। দিনের শেষ অংশটা কাটিয়ে দেন রিশাভ পান্ত (২০) ও রবিন্দ্র জাদেজা (৩)।

এসএএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]