টেস্ট খেলতে চান না সাকিব : বিসিবি সভাপতির দাবি

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৩৮ পিএম, ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯

‘আমি দলের অধিনায়কত্ব করতে চাই না’-দশদিনের ব্যবধানে এমন কথা দুইবার তুলেন সাকিব আল হাসান। সাকিব চান, তরুণ কাউকে যেন এখনই দলের নেতৃত্ব বুঝিয়ে দেয়া হয়। নেতৃত্বে না থাকলে নিজের খেলাটায় আরও মনোযোগ দিতে পারবেন, এমনটাও দাবি করেন দেশ ও বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার।

বাংলাদেশের ক্রিকেট ঐতিহ্য বলছে, নেতৃত্ব পেয়ে গেলে সহজে সেটা ছাড়তে চান না ক্রিকেটাররা। দলের ব্যর্থতার পরও অধিনায়কত্ব ধরে রাখার চেষ্টা করেন। সাকিব এই জায়গাটায় উল্টো, কারণটা কি?

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন মনে করছেন, সাকিব আসলে টেস্ট ফরমেটটাই খেলতে চান না। তাই নেতৃত্ব ছেড়ে দেয়ার কথা তুলছেন বারবার। আজ (বুধবার) মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে পাপন বলেন, ‘টেস্ট খেলায় আগ্রহ নেই সাকিবের। এজন্য সে অধিনায়কত্ব নিয়ে এমন কথা বলছে।’

সাকিবের এখন টেস্ট খেলার মতো মানসিকতা নেই বলেই মনে করছেন নাজমুল হাসান পাপন। বারবার নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দেয়ার কথা তোলায় তার ওপর কিছুটা যেন বিরক্ত বিসিবি সভাপতি।

২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের আগে ছয় মাসের ছুটি চেয়েছিলেন সাকিব। বিসিবি তিন মাসের ছুটি মঞ্জুর করে।

বিসিবি সভাপতির উপলব্ধি, টেস্ট খেলার প্রতি আগ্রহ নেই বলেই মাঝেমধ্যে এমন ছুটি চাইতেন সাকিব। পাপনের ভাষায়, ‘টেস্ট খেলার ইচ্ছা নেই বলেই হয়তো মাঝেমধ্যে টেস্টের সময় বিশ্রাম নিতো সে, আমাদের ধারণা তেমনই।’

অথচ এই টেস্ট ফরমেটে সাকিবের এমন অনেক রেকর্ড আছে, যেগুলো তাকে বিশ্বের সর্বকালের সেরা অলরাউন্ডারদের তালিকায় জায়গা করে দিয়েছে। সাকিব যদি আসলেই টেস্ট থেকে সরে যেতে চান, সেটা বাংলাদেশের জন্য বড় দুঃসংবাদই হবে।

এমএমআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]