এই প্রথম ফিফটির আগে আউট স্মিথ, হারের মুখে অস্ট্রেলিয়া

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৩৩ পিএম, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

দ্য ওভালে ম্যাচ শেষ হওয়ার আগেই যেন টেস্ট জয়ের উদযাপন করে ফেললো ইংল্যান্ডের বোলাররা। চলতি অ্যাশেজ সিরিজের যে কোনো ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যান স্টিভেন স্মিথ হাফ সেঞ্চুরির আগে আউট হবেন- এটা যেন কল্পনাতেও কারো ছিল না।

অবশেষে সেই অকল্পনীয় বিষয়টাই ঘটলো। পুরো অ্যাশেজের একেবারে শেষ ইনিংসে এসে প্রথমবারেরমত ফিফটি প্লাস ইনিংস খেলতে পারলেন না টেস্ট র্যাংকিংয়ে শীর্ষে থাকা এই ব্যাটসম্যান। আউট হলেন মাত্র ২৩ রান করে।

ইনিংসের ২৭তম ওভারেই স্মিথকে ফিরিয়ে দেয়ার বলটি করলেন স্টুয়ার্ট ব্রড। তাকে ফাঁদে ফেলতে লেগ গালিতে বেন স্টোকসকে দাঁড় করিয়ে দিয়েছিলেন জো রুট। প্ল্যান মতই বল করলেন ব্রড। লেগ গালিতে ক্যাচ উঠলো। হালকা ডাইভ দিয়ে সেটি তালুবন্দী করে ফেললেন স্টোকস। ৫৩ বল খেলা স্মিথ আউট হলেন ২৩ রানে।

এবারের অ্যাশেজের প্রথম ম্যাচের দুই ইনিংসে স্মিথ খেলেছিলেন যথাক্রমে ১৪৪ ও ১৪২ রানের ইনিংস। লর্ডসে দ্বিতীয় টেস্টে ব্যাট করার সুযোগ পেলেন এক ইনিংস। খেললেন ৯২ রানের ইনিংস। ওই ম্যাচেই মাথায় আঘাত পেয়েছিলেন তিনি। যে কারণে পরের ইনিংস এবং এরপর তৃতীয় টেস্ট খেলতে পারেননি তিনি।

চতুর্থ টেস্টে ফিরেই প্রথম ইনিংসে ডাবল সেঞ্চুরি করে ফেললেন তিনি। পরের ইনিংসে খেললেন ৮২ রানের ইনিংস। ওভালে শেষ টেস্টের প্রথম ইনিংসে খেললেন ৮০ রানের ইনিংস। অর্থ্যাৎ, ওভালে শেষ ইনিংসে ব্যাট করতে নামার আগে ৬ ইনিংসে স্মিথের সর্বনিম্ন স্কোর ছিল ৮০। এবারই প্রথম ফিফটির নিচে আউট হলেন তিনি।

স্মিথ দ্রুত আউট হওয়া মানেই অস্ট্রেলিয়ার জয়ের আশা পুরোপুরি শেষ। জয়ের জন্য ৩৯৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৮৫ রানেই ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলেছে অস্ট্রেলিয়া। এ রিপোর্ট লেখার সময় অসিদের রান ৪১ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৪১। ৪৯ রান নিয়ে ম্যাথু ওয়েড এবং ১৯ রান নিয়ে রয়েছেন মিচেল মার্শ। জিততে হলে এখনও প্রয়োজন ২৫৮ রান।

Smith

৮ উইকেটে ৩১৩ রান নিয়ে চতুর্থ দিন ব্যাট করতে নামে ইংল্যান্ড। ৩ রান নিয়ে উইকেটে ছিলেন জোফরা আর্চার এবং ৫ রান নিয়ে ছিলেন জ্যাক লিচ। বাকি ২ উইকেটে ১৬ রান যোগ করতে সক্ষম হয় ইংল্যান্ড। অর্থ্যাৎ, ৩২৯ রানেই অলআউট ইংল্যান্ড। ৪ উইকেট নেন নাথান লায়ন। ২টি করে উইকেট নেন প্যাট কামিন্স, পিটার সিডল এবং মিচেল মার্শ।

দুই ইনিংস মিলে ইংল্যান্ডের লিড দাঁড়ায় ৩৯৮ রান। জয়ের জন্য ৩৯৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই বিপর্যয়ে পড়ে অস্ট্রেলিয়া। দলীয় ১৮ রানের মাথায়, ব্যক্তিগত ৯ রানে ফিরে যান মার্কাস হ্যারিস। এরপর দলীয় ২৯ রানের মাথায় ফিরলেন ডেভিড ওয়ার্নার। পুরো অ্যাশেজে ব্যর্থতার ষোলকলা পূর্ণ করে ওয়ার্নার আউট হন ব্যক্তিগত ১১ রান করে।

সম্ভাবনাময়ী ব্যাটসম্যান মার্নাস ল্যাবুসাগনে ফিরে গেলেন মাত্র ১৪ রান করে। ৩৯ বল খেলেন তিনি। মূলতঃ স্টুয়ার্ট ব্রডের তোপের মুখে পড়ে দিশেহারা অস্ট্রেলিয়া। ৪০ রান দিয়ে ইতিমধ্যেই ৩ উইকেট নিয়েছেন তিনি। ১ উইকেট নেন জ্যাক লিচ।

আইএইচএস/এমএস