চাপে থাকা বাংলাদেশকে ‘মরণকামড়’ দিতে চায় জিম্বাবুয়ে

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:১৯ পিএম, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ঘরের মাঠে খেলা। কিন্তু বাংলাদেশ ভীষণ চাপে। আফগানিস্তানের মতো দলের বিপক্ষেও যে পেরে ওঠছে না টাইগাররা! টেস্টের পর ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম দেখাতেই আফগানদের কাছে নাকাল হয়েছে সাকিব আল হাসানের দল।

প্রথম ম্যাচে অবশ্য জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৩ উইকেটের জয় পায় বাংলাদেশ। তবে সে ম্যাচেও কানের পাশ দিয়ে গেছে গুলিটা। তরুণ আফিফ হোসেন হাল না ধরলে জিম্বাবুয়েও ‘খেল খতম’ করে দিতে পারতো স্বাগতিকদের। কাল (বুধবার) আরও একবার এই জিম্বাবুয়ের মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ। এবার ভেন্যু পাল্টে মিরপুর থেকে চট্টগ্রামে।

বাংলাদেশ একটি জিতেছে। জিম্বাবুয়ে টানা দুই ম্যাচে হেরেছে, প্রথমে বাংলাদেশ আর পরে আফগানিস্তানের বিপক্ষে। ফাইনালের আগে আর দুটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবে জিম্বাবুয়ে। তবে কাল হারলেই টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় একদম নিশ্চিত হয়ে যাবে হ্যামিল্টন মাসাকাদজার দলের। তাই টাইগারদের ‘মরণকামড়’ দিতে চায় সফরকারিরা।

সংবাদ সম্মেলনে জিম্বাবুয়ে দলের প্রতিনিধি হয়ে আসা শন উইলিয়ামস এই ম্যান নিয়ে বলেন, ‘এটা আমাদের জন্য বাঁচামরার লড়াই। যদি আমরা ফিল্ডিং এবং অন্যান্য জায়গগুলোয় ঠিকঠাকভাবে সব করতে পারি, তবে বাকি দুই ম্যাচে জয়ের সুযোগ থাকবে।’

ঘরের মাঠেও যা-তা খেলছে টাইগাররা। বাংলাদেশের এই দলটা কি ভঙ্গুর? জিম্বাবুইয়ান অলরাউন্ডার অবশ্য তেমনটা মানতে নারাজ। তিনি বলেন, ‘দেখুন, নিজেদের মাঠে বাংলাদেশ খুবই শক্তিশালি দল। ক্লাব লেভেলে তাদের ভালো কাঠামো আছে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে যে কোনো কিছুই হতে পারে। তবে আমরা জানি তাদের সাকিব, মাহমুদউল্লাহ, মুশির মতো খুব খুবই ভালো কয়েকজন খেলোয়াড় আছে। আমরা তাদের সম্মান করি। তাদের হালকাভাবে নিচ্ছি না। আমরা নিজেদের কাজ এবং দলের জন্য যেটা ভালো হবে সেটা নিয়েই ভাবছি।’

গত ম্যাচে আফগানিস্তানের কাছে হারের পর চাপে আছে বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ে কি এই সুযোগটা নিতে চাইবে? উইলিয়ামস মনে করছেন, সেটি কাজে লাগাতে তো অবশ্যই চাইবে তাদের দল।

জিম্বাবুইয়ান অলরাউন্ডারের ভাষায়, ‘হ্যাঁ, অবশ্যই। যেটা বললাম আমাদের নিজেদের খেলায় মনোযোগ দিতে হবে, তবেই সবকিছু ঠিকভাবে হবে। আমরা জানি, তারা চাপে আছে। তবে আমাদের মৌলিক বিষয়গুলোর ওপর জোর দিতে হবে।’

এই অবস্থায় দাঁড়িয়ে কি ট্রফি জেতা সম্ভব? উইলিয়ামস সেটাকেও অসম্ভবের তালিকায় ফেলে দিচ্ছেন না। তিনি বলেন, ‘আমি সবসময়ই বিশ্বাস করি, আমাদের ট্রফি জেতার সুযোগ আছে। এই খেলায় একটা সুন্দর ব্যাপার আছে। সবসময়ই সুযোগ থাকে। কোনোকিছুই অসম্ভব নয়। আমরা মাঠে যাব এবং নিজেদের সেরাটা দিয়েই চেষ্টা করব।’

এমএমআর/জেআইএম