শান্ত করবেন ইনিংস ওপেন, সঙ্গে বিপ্লব না তাইজুল এ নিয়ে সংশয়

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৫:৫৭ পিএম, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচ জিততে যতই কষ্ট হোক, আর আফগানিস্তানের সাথে যত অনুজ্জ্বল ও আড়ষ্টই মনে হোক না কেন , আসল সত্য হলো যে, আজ বুধবার রাতে জিম্বাবুয়েকে হারাতে পারলেই তিন জাতি টি-টোয়েন্টি আসরের প্রত্যাশিত ও কাঙ্খিত ফাইনালে উঠে যাবে সাকিবের দল।

জিম্বাবুইয়ানদের হারানোর সব রকম রনকৌশলই আঁটা হচ্ছে। জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানদের পেসে বধ করা কঠিন। তাই যতটা সম্ভব স্পিন আক্রমণটাকে ধারালো এবং বৈচিত্র্যপূর্ণ করে সাজানোর চিন্তা চলছে।

আজ দুপুরে চট্টগ্রামের টিম হোটেল ‘র্যাডিসন ব্লু’তে এক লম্বা-চওড়া টিম মিটিং হয়েছে। কথা ছিল সেখানেই দল চূড়ান্ত হয়ে যাবে। কোন ১১ জন খেলবেন, অধিনায়ক সাকিব আর কোচ রাসেল ডোমিঙ্গোর মত নিয়ে তাও চূড়ান্ত করে ফেলা হবে; কিন্তু তা হয়নি।
ভিতরের খবর একটি পজিশন নিয়ে এখনো খানিক দ্বিধা-সংশয়ে টিম ম্যানেজমেন্টও নির্বাচকরা।

তাহলো আগের দুই ম্যাচে ভাল বোলিং করা বাঁ-হাতি স্পিনার তাইজুল ইসলামকেই রাখা হবে, নাকি মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান কাম লেগব্রেক বোলার আমিনুল ইসলাম বিপ্লবকে খেলানো হবে? তা ঠিক হয়নি এখনো। নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, সেটা দল মাঠে যাবার পর চূড়ান্ত করা হবে।

এর বাইরে একাদশের বাকি অংশের গঠন শৈলি একরকম চূড়ান্ত। সৌম্য সরকার বাদ পড়লেও ওপরে নেয়া হয়েছে এইচপির দুই সম্ভাবনাময় তরুণ নাজমুল হোসেন শান্ত ও নাঈম শেখকে। জানা গেছে, নির্বাচকদের প্রথম পছন্দ নাজমুল হোসেন শান্ত এবং তাকেই আজ খেলানো হতে পারে। ডানহাতি লিটন দাসের সঙ্গে বাঁ-হাতি নাজমুল শান্তকেই ওপেন করতে দেখা যাবে হয়তো আজ।

এছাড়া বাকি লাইনআপ মোটামুটি অপরিবর্তিত থাকছে। মুশফিকুর রহীম আবার উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান থেকে নিজের স্বাভাবিক পজিশন চারে চলে আসবেন। এছাড়া স্বাভাবিক ছন্দে না থাকলেও মাহমুদউল্লাহ আর সাব্বির রহমানকে আরও একবার সুযোগ দেবার পক্ষে নির্বাচকরা।

এ দু’জনার ব্যাট সেভাবে কথা না বললেও আজকের ম্যাচেও মিডল অর্ডারে থাকছেন সাব্বির ও রিয়াদ। এছাড়া অধিনায়ক সাকিব আল হাসান তো অটোমেটিক চয়েজ। সাথে মোসাদ্দেক আর আফিফ হোসেন ধ্রুব এবং পেস বোলিং অলরাউন্ডার সাইফউদ্দীনও নিশ্চিত।

এখন বাকি থাকলো দুটি পজিশন। একটি স্পিনার আর অন্যটি দ্বিতীয় পেস বোলার। জানা গেছে ডানহাতি মোসাদ্দেকের ওপর আরও একবার আস্থা রাখতে চাইছে টিম ম্যানেজমেন্ট। সাইফউদ্দীনের সাথে পেস বোলার হিসেবে মোস্তাফিজই হয়ত খেলবেন। শেষ মুহূর্তে দলে অন্তর্ভূক্ত হলেও রুবেল হোসেন আর শফিউল ইসলামের কেউ জায়গা পাচ্ছেন না আজ।

এখন ওই একটি জায়গায় আছে সংশয়। তাইজুল না বিপ্লব? তাইজুল জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে বেশ ভাল বোলিং করেছেন। আর চট্টগ্রামের পিচ ফ্ল্যাট। ঢাকার শেরে বাংলার চেয়ে বল কম টার্ন করবে। এটা প্রায় নিশ্চিত।

এখানে তাইজুলের মত একজন পরিণত প্রতিষ্ঠিত ও অভিজ্ঞ বাঁ-হাতি স্পিনারকে রেখে একদমই আনকোরা নবীন বিপ্লবকে খেলানোয় আছে বড় ঝুঁকি। তাই টিম ম্যানেজমেন্ট ও নির্বাচকরা পড়েছেন সংকটে। একদিকে কোচের চাওয়া একজন লেগি, আর অন্যদিকে উইকেট ও পারিপার্শিকতা বলছে ভিন্ন কথা। দেখা যাক, শেষ পর্যন্ত একাদশ কেমন দাঁড়ায়।

বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ

লিটন দাস, নাজমুল হোসেন শান্ত, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহীম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন, আফিফ হোসেন, তাইজুল ইসলাম/আমিনুল বিপ্লব, সাইফউদ্দীন, মোস্তাফিজুর রহমান।

এআরবি/আইএইচএস/পিআর