শীর্ষে পৌঁছানোই লক্ষ্য মার্শাল আইয়ুবের

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১০:০৩ পিএম, ০৯ অক্টোবর ২০১৯

তামিম থাকার পরও চট্টগ্রামের অধিনায়ক মুমিনুল হক। একইভাবে ঢাকা মেট্রোয়’ও তাই। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ নন। নেতৃত্বে মার্শাল আইয়ুব। কাল বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টায় (ম্যাচ শুরু সকাল সাড়ে নয়টায়) শেরে বাংলার মাঝ উইকেটে দাঁড়িয়ে ঢাকা মেট্রোর অধিনায়ক মার্শাল আইয়ুব টস করবেন চট্টগ্রাম ক্যাপ্টেন মুমিনুল হকের সাথে।

তার দ্বিতীয় স্তরের ট্রফি হাতে শেরে বাংলায় ফটোসেশনেও অংশ নিয়েছেন মার্শাল আইয়ুব ও মুমিনুল। পুরনো ঢাকার গেন্ডারিয়া এলাকার মার্শাল আইয়ুবের মাঝে অনেকেই খুঁজে ফিরেছিলেন আমিনুল ইসলাম বুলবুলকে।

কয়েক মৌসুম ঘরোয়া ক্রিকেটে দোর্দণ্ড প্রতাপে খেলে সামর্থ্যের জানানও দিয়েছিলেন মার্শাল। জাতীয় লিগ-বিসিএল ফার্স্ট ক্লাস ক্রিকেটের দুর্দান্ত পারফরমার। প্রথম শ্রেণিতে ১৩১ ম্যাচে ১৭ সেঞ্চুরি ৩৮ হাফ সেঞ্চুরিতে ১৪ হাজারের ওপর (১৪৬২৫) রান।

কিন্তু হায়, সেই পরিপাটি ব্যাটিং শৈলির অধিকারি ও স্পিনে সিদ্ধহস্ত মার্শাল টেস্টে নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি। ৩ টেস্টে সর্বোচ্চ ৪১ রানসহ ৬ ইনিংসে সাকল্যে সংগ্রহ ১২০।

অবশ্য সেভাবে সুযোগও পাননি আর। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার বিচরণ মোটে চার মাসের (২০১৩ সালের অক্টোবরে চট্টগ্রামে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে অভিষেক, আর ২০১৪ সালের জানুয়ারিতে শ্রীলঙ্কার সাথে শেষ বার টেস্ট খেলতে নামা)। তারপর আর নির্বাচকরা তার দিকে তাকাননি। অবহেলিতই থেকে গেছেন মার্শাল।

এবার সেই ঢাকার ছেলে ঢাকা মেট্রোর অধিনায়ক। বলার অপেক্ষা রাখে না, ঢাকা মেট্রো এখন দ্বিতীয় স্তরে বা টায়ার ‘টু’তে। অধিনায়ক মার্শাল আইয়ুবের আশা দলকে প্রথম স্তরে নিয়ে যাওয়া।

মুখে আশার বাণী, ‘আসলে একটা দল যখন টুর্নামেন্ট খেলতে আসে ওদের লক্ষ্যই থাকে চ্যাম্পিয়ন হওয়া। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে টায়ার-ওয়ানে যাওয়া। এ বছরটা একটু ভিন্ন হতে পারে, অনেক পরীক্ষা-নিরীক্ষা নিয়ে শুরু হচ্ছে এনসিএল। আশা করছি খুব ভালো একটা টুর্নামেন্ট হবে।’

নিজ দলকে নিয়ে আশাবাদী মার্শাল। দলে থাকা সাদমান আছে, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সাথে নতুন লেগস্পিন সেনসেশন আমিনুল ইসলাম বিপ্লবও আছেন। তাদের নিয়ে ভাল কিছুর আশা তার। দেখা যাক মার্শালের স্বপ্ন সফল হয় কি না?

এআরবি/আইএইচএস/এমকেএইচ