শেষ পর্যন্ত নেতৃত্ব থেকে সরিয়েই দেয়া হলো সরফরাজকে

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৫৫ পিএম, ১৮ অক্টোবর ২০১৯

বিশ্বকাপে ব্যর্থতা তো আছেই। তারও আগে থেকে সরফরাজ আহমেদের নেতৃত্ব নিয়ে সমালোচনা চলছিল একের পর এক। শোনা যাচ্ছিল, যে কোনো এক ফরমেটে নেতৃত্ব হারাতে পারেন পাকিস্তান অধিনায়ক।

শেষ পর্যন্ত কোনো এক ফরমেট নয়, একসঙ্গে দুই ফরমেটের নেতৃত্ব হারালেন সরফরাজ। টেস্ট আর টি-টোয়েন্টির জন্য নতুন অধিনায়ক ঘোষণা করেছে পাকিস্তান। ওয়ানডে ফরমেটের ঘোষণা এখনও আসেনি, তবে সরফরাজ ওই ফরমেটটাতেও থাকতে পারবেন কি না, সেটি নিয়ে সংশয় রয়েই গেছে।

নভেম্বর-ডিসেম্বরে আসন্ন অস্ট্রেলিয়া সফরের জন্য নতুন টেস্ট আর টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক বেছে নিয়েছে পাকিস্তান। সরফরাজ তো নেতৃত্ব হারিয়েছেনই, দল থেকেও জায়গা হারিয়েছেন।

সরফরাজের জায়গায় টেস্টে নেতৃত্ব পেয়েছেন আজহার আলি, টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক হয়েছেন বাবর আজম। আর ওয়ানডে ফরমেটে এখনও কাউকে অধিনায়ক হিসেবে বেছে নেয়া হয়নি। তাই কাগজে কলমে সরফরাজ এখনও নেতৃত্ব হারাননি।

যেহেতু আপাতত পাকিস্তানের ওয়ানডে সিরিজও নেই। আগামী বছর জুলাইয়ে সিরিজ। তাই ওই ফরমেটের অধিনায়ক বেছে নেয়ার জন্য সময় হাতে রেখে দিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।

সরফরাজ নেতৃত্ব হারানোয় পাকিস্তান ক্রিকেটে এখন নতুনদের জয়জয়কর। কোচ ও প্রধান নির্বাচক মিসবাহ উল হক নতুন দায়িত্ব পেয়েছেন। অধিনায়করাও নতুন দায়িত্ব পেলেন।

২০১৬ সালে আজহার আলির কাছ থেকেই ওয়ানডে নেতৃত্ব পেয়েছিলেন সরফরাজ। এবার তার হাতে তুলে দিচ্ছেন টেস্ট নেতৃত্ব। ২০১৯-২০ ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপ ম্যাচ থেকে দায়িত্ব পালন করবেন আজহার, যেটি আগামী বছর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাকিস্তানের দুই টেস্টের সিরিজ দিয়ে শুরু হচ্ছে। আর বাবর টি-টোয়েন্টির নেতৃত্বে থাকবেন কমপক্ষে আগামী বছর অস্ট্রেলিয়ায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত।

টেস্ট দল থেকে যে সরফরাজ নেতৃত্ব হারাচ্ছেন, সেটা অনুমিতই ছিল। অধিনায়ক হিসেবে নিজে ভালো করছেন না, পাকিস্তানও এখন টেস্ট র‍্যাংকিংয়ে সাত নাম্বারে। তারা গত ডিসেম্বর-জানুয়ারিতে দক্ষিণ আফ্রিকায় ৩-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে। তার আগে সংযুক্ত আরব আমিরাতে নিউজিল্যান্ডের কাছে টেস্ট সিরিজ হেরেছে ২-১ ব্যবধানে।

তবে টি-টোয়েন্টি থেকে সরফরাজকে সরিয়ে দেয়ার বিষয়টি কিছুটা অবাক করার মতোই। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ঘরের মাঠে সর্বশেষ সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে পাকিস্তান। তবে এই সরফরাজের অধীনেই কিন্তু এই ফরমেটে এক নাম্বারে ওঠে আসে আনপ্রেডিক্টেবলরা। এক সিরিজের ব্যর্থতায়ই নেতৃত্ব হারাবেন, সেটি হয়তো ভাবেননি সরফরাজও।

এমএমআর/এমকেএইচ