মোস্তাফিজকে ৩০ লাখ টাকা দিচ্ছে বিসিবি!

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১০:৫২ এএম, ২৪ অক্টোবর ২০১৯

সোমবার দুপুরে ক্রিকেটারদের ডাকা ধর্মঘটের সমাধান মিলেছে বুধবার রাতে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) কার্যালয়ে বোর্ডের শীর্ষকর্তাদের সঙ্গে আলোচনার পর ক্রিকেটাররা পেয়েছেন সকল দাবিপূরণের আশ্বাস। ফলে তারা সরে দাঁড়িয়েছেন ধর্মঘটের সিদ্ধান্ত থেকে এবং সম্মত হয়েছেন মাঠের ফেরার জন্য।

ক্রিকেটারদের সঙ্গে আলোচনার পর বুধবার রাতে সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে আসেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনসহ বিসিবি পরিচালকরা। স্বাভাবিকভাবেই তখন সেখানে ছিলেন আন্দোলনরত ক্রিকেটাররাও।

এই মিডিয়া সেশনে ক্রিকেটারদের সকল দাবিদাওয়া মেনে নেয়ার সময় বিসিবি সভাপতি জানিয়েছিলেন, ক্রিকেটারদের দলীয় দাবির পাশাপাশি অনেক ব্যক্তিগত বিষয় নিয়েও আলোচনা হয়েছে বৈঠকে। চেষ্টা করেছেন সেসবেরও সমাধান দেয়ার।

এর মধ্যে অন্যতম ছিলো জাতীয় দলের বাঁহাতি পেসার মোস্তাফিজুর রহমানকে আর্থিক ক্ষতিপূরণ দেয়ার সিদ্ধান্ত। পাকিস্তান সুপার লিগে খেলতে অনুমতিপত্র না দেয়ায়, যে আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয়েছে মোস্তাফিজকে, তার প্রেক্ষিতে ৩০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বোর্ড। এ তথ্য নিশ্চিত করেছে ক্রিকেট বোর্ডের দায়িত্বশীল একটি সুত্র।

উল্লেখ্য, ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ ক্রিকেটে ২০১৬ সাল থেকে টানা তিন মৌসুমে খেলেছিলেন মোস্তাফিজ। প্রথম দুইবার সানরাইজার্স হায়দরবাদ এবং শেষবার তিনি আইপিএল মাতিয়েছেন মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের জার্সি গায়ে।

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে, চলতি বছর আইপিএলের শেষ আসরেও দেখা যেতে পারত বাঁহাতি এ কাটার মাস্টারকে। কিন্তু ওয়ানডে বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে, মোস্তাফিজকে এ বছরের আইপিএলে খেলার অনুমতি দেয়নি বিসিবি। একই সঙ্গে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট 'পাকিস্তান সুপার লিগ' খেলার অনুমতিও দেয়া হয়নি মোস্তাফিজকে। 

তখনই কথা উঠেছিল যে, জাতীয় দলের কোনো খেলা না থাকার পরেও অনুমিত না দেয়ায় মোস্তাফিজ যে আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন- সে ব্যাপারে কী করবে বোর্ড। এ বিষয়ে তখন কিছুই জানানো হয়নি বিসিবির পক্ষ থেকে। তবে দেরি করে হলেও, অবশেষে আর্থিক ক্ষতিপূরণ ঠিকই পাচ্ছেন মোস্তাফিজ।

এআরবি/এসএএস/জেআইএম