দুই সপ্তাহ আগেও হয়তো কেউ বিশ্বাস করতো না আমরা জিতব : ডোমিঙ্গো

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:৫৪ পিএম, ০৯ নভেম্বর ২০১৯

বাংলাদেশ দল যখন ভারত সফরে রওনা হয়, তখন দেশের মানুষের মনোযোগের কেন্দ্রে নিষেধাজ্ঞার কারণে দলের বাইরে থাকা সাকিব আল হাসান। মাসখানেক আগে থেকেই যে সফরের ব্যাপারে সকলের আগ্রহ ছিলো তুঙ্গে, সেখানে সফরের আগে দিয়ে তা নেমে আসে শূন্যের কোটায়। কারো যেনো কোনো ভ্রুক্ষেপই ছিলো না জাতীয় দলের ব্যাপারে।

তবে মাহমুদউল্লাহ, মুশফিকরা সকলের দৃষ্টি জাতীয় দলে ফেরাতে খুব একটা সময় নেননি। সফরের প্রথম ম্যাচেই ভারতকে হারিয়ে দিয়ে সাড়া ফেলে বাংলাদেশ দল। যে কারণে সবাই পুনরায় আগ্রহ দেখাতে শুরু করে জাতীয় দলের ব্যাপারে। সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচটি হেরে গেলেও, এখনও সুযোগ রয়েছে শেষ ম্যাচ জিতে সিরিজ নিজেদের করে নেয়ার।

আগামীকাল (রোববার) নাগপুরে সিরিজের শেষ ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ ও ভারত। সে ম্যাচের আগে ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে আজ (শনিবার) টাইগারদের হেড কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো জানিয়েছেন সিরিজের শেষ ম্যাচের ব্যাপারে তার দলের ভাবনার কথা। ডোমিঙ্গোর মতে, গত কয়েকদিনে বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের উন্নতি চোখে পড়ার মতো।

তিনি বলেন, ‘এই সফরে আসার আগে কয়েক সপ্তাহ খুব কঠিন সময় গিয়েছে আমাদের। খেলোয়াড়রা সকল কৃতিত্বের দাবিদার। গত দশদিনে তারা যে ইচ্ছাশক্তির প্রদর্শনী করেছে, তা সত্যিই প্রশংসনীয়। তারা নতুন কিছু করতে উন্মুখ ছিলো। দেশের বাইরে কোয়ালিটি দলের বিপক্ষে দারুণ ক্রিকেট খেলেছে। কেউ যদি দুই সপ্তাহে আগে বলতো যে আমরা শেষ ম্যাচের আগে সমতায় থাকবো, কেউই হয়তো বিশ্বাস করতো না।’

ডোমিঙ্গো আরও বলেন, ‘তাই সঙ্গত কারণেই আমরা নিজেদের অবস্থান নিয়ে খুশি। আগামীকাল আমাদের সামনে দারুণ একটি সুযোগ। আমরা সত্যিই রোমাঞ্চিত। কারণ দিন শেষে বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী দেশ ভারত। কেউই বাংলাদেশকে সুযোগ দিতে চায় না। তবে আমরা যদি নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী খেলতে পারি, তাহলে নিজেরাই নিজেদের সুযোগ তৈরি করে নিতে পারবো।’

সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে একই একাদশ নিয়ে খেলেছে বাংলাদেশ। যেখানে ছিলো না কোনো বাঁহাতি স্পিনার। অথচ একটা সময় ছিলো যখন বাঁহাতি স্পিনাররাই ছিলেন সাফল্যের চাবিকাঠি। যার ফলে কোনো বাঁহাতি না নিয়ে খেলায় চারিদিকে চলছে জোর আলোচনা-সমালোচনা।

টাইগার হেড কোচ সাফ জানিয়েছেন, কোনো বাঁহাতি না নেয়া কিংবা সব অফস্পিনার নেয়ায় কোনো ভুল দেখছেন না তিনি। এছাড়া দলের কেউ এক-দুই ম্যাচ খারাপ খেললেই ছুড়ে ফেলে দেয়ার পক্ষে নন তিনি। তার কথার সারাংশ এই ছিলো যে, শেষ ম্যাচটিতে তেমন একটা পরিবর্তন আসবে না টাইগার একাদশে।

ডোমিঙ্গো বলেন, ‘ভারতের টপঅর্ডারে অনেক বাঁহাতি আছে। প্রথম ম্যাচে অফস্পিনারদের নিয়ে খেলাটা দারুণভাবে কাজ করেছে। এখন পরের ম্যাচে এটা কাজ করেনি মানে এই না যে, আমরা পরিকল্পনা বদলে ফেলবো। একটি পরাজয়ের কারণে আমরা আমূল পরিবর্তন আনতে পারি না। আমরা একটা গ্রুপকে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য দেখতে চাই।’

এসএএস/এমকেএইচ