ভারতের দুর্বলতা খুঁজে পেয়েছে বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৩৬ পিএম, ০৯ নভেম্বর ২০১৯

শুরুতে আসেন দ্বীপক চাহার ও খলিল আহমেদ। মাঝে স্পিন আক্রমণ সামলান ইয়ুজভেন্দ্র চাহাল, ক্রুনাল পান্ডিয়া ও ওয়াশিংটন সুন্দর। আর প্রয়োজন পড়লে হাত ঘুরিয়ে যান অলরাউন্ডার শিভাম দুবে। বাংলাদেশের বিপক্ষে চলতি টি-টোয়েন্টি সিরিজে ভারতের বোলিং লাইনআপ এটিই।

যেখানে লেগ স্পিনার ইয়ুজভেন্দ্র চাহাল ব্যতীত আর কেউই পরীক্ষিত তারকা নন। কিংবা আন্তর্জাতিক অঙ্গনে খুব একটা অভিজ্ঞও নন। যার খেসারত ভারত দিয়েছে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে। ম্যাচ জমিয়ে তুলেও শেষ দিকে হেরে গিয়েছে খলিল, শিভামদের আলগা বোলিংয়ে।

দ্বিতীয় ম্যাচে ঘুরে দাঁড়িয়ে ভারত জয় পেলেও, শেষ ম্যাচে ভারতের এই অনভিজ্ঞ বোলিং লাইনআপকেই টার্গেট করতে চান বাংলাদেশের কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো। তার মতে টাইগার ব্যাটসম্যানরা সামর্থ্য অনুযায়ী বোলিং করলে ভারতের এই অনভিজ্ঞ বোলাররা চাপে পড়তে বাধ্য।

আজ (শনিবার) ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে ডোমিঙ্গো বলেন, ‘দেখুন, ভারতীয় দলটা শক্তিশালী। কিন্তু তাদের বোলিং ডিপার্টমেন্ট অতটা নয়। তাই আমরা যদি নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী ব্যাটিং করতে পারি, তাহলে তাদের বোলিং ডিপার্টমেন্টকে চাপে ফেলতে পারবো।’

এ বিষয়ে টাইগার কোচের সঙ্গে একমত প্রকাশ করেন ভারতীয় অধিনায়ক রোহিত শর্মাও। তবে তিনি মনে করেন, এমন পরিস্থিতিতেই অনভিজ্ঞরা শিখতে পারবে এবং ভবিষ্যতের জন্য তৈরি হবে।

রোহিত বলেন, ‘হ্যাঁ! তারা খানিক অনভিজ্ঞ। আমি মনে করি এটাই তাদের জন্য শেখার সেরা সময়। আমরা সবসময় বলি যে, ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলার মাধ্যমে শিখতে হবে। তবে আমি মনে করি, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলার আগে কেউ বুঝতে পারবে না বোলার হিসেবে তার মান কতটুকু। তাই এটা পুরো বোলিং ইউনিটের জন্য দারুণ একটা চ্যালেঞ্জ।’

এসএএস/এমকেএইচ