রেকর্ডগড়া শুরুর পর অসি তোপে লন্ডভন্ড পাকিস্তান

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:০১ পিএম, ২১ নভেম্বর ২০১৯

'সকালের সূর্য সবসময় গোধূলির আভাস দেয় না'- কথাটি আরও একবার সত্য প্রমাণিত করলো পাকিস্তান ক্রিকেট দল। ব্রিসবেনের গ্যাবায় অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথম দিনে দুর্দান্ত সূচনার পর হুট করেই হুড়মুড়িয়ে পড়েছে তাদের ব্যাটিং লাইনআপ।

দুই ওপেনার শান মাসুদ ও অধিনায়ক আজহার মিলে উইকেটশূন্য কাটিয়ে দিয়েছিলেন প্রথম সেশন, উদ্বোধনী জুটিতে যোগ করেছিলেন ৭৫ রান। যা কি না গ্যাবায় কোনো টেস্টের প্রথম ইনিংসে অতিথি দলের সর্বোচ্চ রানের উদ্বোধনী জুটির রেকর্ড। আগের রেকর্ডটি ছিলো নিউজিল্যান্ডের দখলে। ১৯৮০ সালে জন রাইট ও ব্রুস এডগার গড়েছিলেন ৬৪ রানের জুটি।

এমন রেকর্ডগড়া জুটির পরেও দিন শেষে দেখা যাচ্ছে মাত্র ২৪০ রানেই অলআউট হয়ে গেছে পাকিস্তান। উদ্বোধনী জুটির পর টপঅর্ডারের বাকি ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার কারণেই এমন অবস্থায় পড়েছে সফরকারীরা।

অথচ টস জিতে ব্যাট করতে নেমে দারুণ লড়াই করেছিলেন শান ও আজহার। দুজন মিলে কাটিয়ে দেন পুরো ৩৩টি ওভার। দলীয় ৭৫ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ২৭ রানে ফেরেন শান মাসুদ। একইসঙ্গে শুরু করে দিয়েন ভয়াবহ ব্যাটিং বিপর্যয়ের।

যার রেশ ধরে বিনা উইকেট ৭৫ থেকে হুট করেই ৪ উইকেটে ৭৫ রানের দলে পরিণত হয় পাকিস্তান। দারুণ ব্যাট করতে থাকা আজহার ফেরেন ৩৯ রান করে। এরপর বাবর আজম ও হারিস সোহেল ১ রানের বেশি করতে পারেননি। পরে ইফতিখার আহমেদ ৭ রানে আউট হলে ৯৪ রানেই ৫ উইকেট হারায় পাকিস্তান।

সেখান থেকে ২০০ ছাড়ানো সংগ্রহ পাওয়ার পুরো কৃতিত্ব আসাদ শফিকের। তবে তার আগে পাল্টা আক্রমণ করে খেলে যান উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ রিজওয়ান। ষষ্ঠ উইকেটে আসাদের সঙ্গে ৪৯ রানের জুটি গড়েন রিজওয়ান, যেখানে তার একার অবদানই ৩৭ রান।

তবে দলীয় ১৪৩ রানে ফিরে যান তিনিও। এরপর ইয়াসির শাহকে সঙ্গে নিয়ে ইনিংসের সর্বোচ্চ ৮৪ রানের জুটি গড়েন আসাদ। নিজে তুলে নেন ফিফটি, জাগান সেঞ্চুরির সম্ভাবনা। কিন্তু দলীয় ২২৭ রানের মাথায় পরপর ৩ উইকেট হারিয়ে বসে পাকিস্তান। ইয়াসির ফেরেন ২৭ রান করে, দারুণ এক ডেলিভারিতে আসাদ বোল্ড হন ৭৬ রানের মাথায়। এরপর অলআউট হতে আর বেশি সময় লাগেনি তাদের।

অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে বল হাতে নাথান লিওন ১, জশ হ্যাজলউড ২, প্যাট কামিনস ৩ ও মিচেল স্টার্ক নেন ৪টি উইকেট।

এসএএস/জেআইএম